ঢাকা , রবিবার, ২৩ জুন ২০২৪, ৯ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

বিক্রেতা শূন্য ৪ কোম্পানি

  • ডেস্ক :
  • আপডেট সময় ০১:০০ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২১ সেপ্টেম্বর ২০২৩
  • 130

ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জে (ডিএসই) বৃহস্পতিবার লেনদেনের আড়াই ঘন্টার মধ্যে বিক্রেতা উধাও হয়ে গেছে ৪ কোম্পানির শেয়ারে। এতে কোম্পানিগুলোর শেয়ার হল্টেড হয়ে মূল্য স্পর্শ করছে সার্কিট ব্রেকারে।

ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জ (ডিএসই) সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।

কোম্পানিগুলো হচ্ছে- ইউনিয়ন ইন্স্যুরেন্স, শ্যামপুর সুগার, খান ব্রাদার্স পিপি ওভেন ব্যাগ ও খুলনা প্রিন্টিং অ্যান্ড প্যাকেজিং লিমিটেড।

সূত্র মতে, আজ বেলা ১২টা ৪০ মিনিট পর্যন্ত জনতা ইন্স্যুরেন্সের স্ক্রিনে ১২ লাখ ৯৬ হাজার ১৩৩টি শেয়ার কেনার আবেদন থাকলেও বিক্রেতার ঘর শূন্য ছিল। আলোচ্য সময়ে কোম্পানিটির শেয়ার সর্বশেষ ৬৮ টাকা ৪০ পয়সা দরে লেনদেন হয়।

একই সময় শ্যামপুর সুগারের স্ক্রিনে ১ লাখ ৩৮ হাজার ১৩৪টি শেয়ার কেনার আবেদন থাকলেও বিক্রেতার ঘর শূন্য ছিল। আলোচ্য সময়ে কোম্পানিটির শেয়ার সর্বশেষ ১১৭ টাকা ৩০ পয়সা দরে লেনদেন হয়। গতকাল এই শেয়ারটির সমাপনী দরছিল ১০৬ টাকা ৭০ পয়সা।

এই সময়ে খান ব্রাদার্স পিপি ওভেন ব্যাগ ও খুলনা প্রিন্টিংয়ের স্ক্রিনে অসংখ্য ক্রেতা থাকলেও বিক্রেতা নেই।

ট্যাগস

বিক্রেতা শূন্য ৪ কোম্পানি

আপডেট সময় ০১:০০ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২১ সেপ্টেম্বর ২০২৩

ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জে (ডিএসই) বৃহস্পতিবার লেনদেনের আড়াই ঘন্টার মধ্যে বিক্রেতা উধাও হয়ে গেছে ৪ কোম্পানির শেয়ারে। এতে কোম্পানিগুলোর শেয়ার হল্টেড হয়ে মূল্য স্পর্শ করছে সার্কিট ব্রেকারে।

ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জ (ডিএসই) সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।

কোম্পানিগুলো হচ্ছে- ইউনিয়ন ইন্স্যুরেন্স, শ্যামপুর সুগার, খান ব্রাদার্স পিপি ওভেন ব্যাগ ও খুলনা প্রিন্টিং অ্যান্ড প্যাকেজিং লিমিটেড।

সূত্র মতে, আজ বেলা ১২টা ৪০ মিনিট পর্যন্ত জনতা ইন্স্যুরেন্সের স্ক্রিনে ১২ লাখ ৯৬ হাজার ১৩৩টি শেয়ার কেনার আবেদন থাকলেও বিক্রেতার ঘর শূন্য ছিল। আলোচ্য সময়ে কোম্পানিটির শেয়ার সর্বশেষ ৬৮ টাকা ৪০ পয়সা দরে লেনদেন হয়।

একই সময় শ্যামপুর সুগারের স্ক্রিনে ১ লাখ ৩৮ হাজার ১৩৪টি শেয়ার কেনার আবেদন থাকলেও বিক্রেতার ঘর শূন্য ছিল। আলোচ্য সময়ে কোম্পানিটির শেয়ার সর্বশেষ ১১৭ টাকা ৩০ পয়সা দরে লেনদেন হয়। গতকাল এই শেয়ারটির সমাপনী দরছিল ১০৬ টাকা ৭০ পয়সা।

এই সময়ে খান ব্রাদার্স পিপি ওভেন ব্যাগ ও খুলনা প্রিন্টিংয়ের স্ক্রিনে অসংখ্য ক্রেতা থাকলেও বিক্রেতা নেই।