ঢাকা , বৃহস্পতিবার, ২৫ এপ্রিল ২০২৪, ১২ বৈশাখ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

শীতে বাড়ে নিউমোনিয়ার ঝুঁকি, সতর্ক থাকবেন যেভাবে

  • ডেস্ক :
  • আপডেট সময় ০১:৪০ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ৫ ডিসেম্বর ২০২৩
  • 99

শীতকালে সুস্থ থাকা একটা চ্যালেঞ্জ। সর্দি-কাশি ও জ্বর তো আছেই। একই সঙ্গে দোসর হয় নিউমোনিয়াও। বাড়ির ছোট থেকে বয়স্ক সদস্যরা শীতে নিউমোনিয়ার কবলে পড়তে পারেন সবাই।

ফুসফুস সংক্রমণের কারণেই মূলত নিউমোনিয়া হয়। তবে শুরুতে এর গুরুত্ব না দিলে পরে গুরুতর আকার ধারণ করতে পারে।

নিউমোনিয়ার প্রাথমিক লক্ষণ হলো অস্বাভাবিক জ্বর। এই জ্বর ক্রমশ বাড়তে থাকা নিউমোনিয়ার অন্যতম উপসর্গ। একই সঙ্গে কাশি, বুক মাথায় হালকা ব্যথা।

এই লক্ষণগুলো দেখলে অবশ্যই চিকিৎসকের সঙ্গে পরামর্শ করা জরুরি। তবে তার চেয়েও বেশি গুরুত্বপূর্ণ হলো নিউমোনিয়া থেকে নিজেকে সুরক্ষিত রাখা। তার জন্য মেনে চলতে হবে কয়েকটি নিয়ম-

হাত ধুতে হবে
বাইরে থেকে ফিরে হাত ধোয়ার অভ্যাস বজায় রাখুন। নিউমোনিয়া আটকানোর এর চেয়ে স্বাস্থ্যকর উপায় আর নেই। নিজেও সর্দি-কাশিতে ভুগলে বারবার হাত ধুয়ে নিন।

হাতে কোনো রকম জীবাণু জমতে দেবেন না। হাত না ধুয়ে মুখ, চোখ, নাকে হাত দেবেন না। খেতে বসার আগেও ভাল করে সাবান দিয়ে হাত ধুয়ে নেবেন।

গরম পোশাক পরুন
যাদে ঠান্ডা লাগার সমস্যা আছে, তারা শীতে সব সময় গরম পোশাক পরে থাকার চেষ্টা করুন। খেয়াল রাখুন যাতে কোনোভাবেই ঠান্ডা না লেগে যায়। গরম পানি পান করুন। রাতে বাইরে বের হলেও মাথা, কান মাফলারে মুড়িয়ে রাখুন।

পানি পান করুন
প্রচুর পরিমাণে পানি পান করুন। নিজেকে আর্দ্র না রাখলে যে কোনো অসুখ হানা দেবে শরীরে। সারাদিন অন্তত ৭-৮ গ্লাস পানি পান করুন। গরম পানিও খেতে পারেন। গলাব্যথা হলে স্বস্তি পাবেন।

পুষ্টিকর খাবার খান
স্বাস্থ্যকর খাবার খান। শীতকালে প্রচুর সবুজ শাকসবজি পাওয়া যায় বাজারে। প্রতিদিন খাবারের পাতে সেগুলো রাখুন। ফাইবার, ভিটামিন, কার্বোহাইড্রেটে সমৃদ্ধ খাবার শীতে অন্য রোগের সঙ্গে লড়াই করার শক্তি জোগায়।

সূত্র: হেলথলাইন/এনআইএইচ.গভ

ট্যাগস

শীতে বাড়ে নিউমোনিয়ার ঝুঁকি, সতর্ক থাকবেন যেভাবে

আপডেট সময় ০১:৪০ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ৫ ডিসেম্বর ২০২৩

শীতকালে সুস্থ থাকা একটা চ্যালেঞ্জ। সর্দি-কাশি ও জ্বর তো আছেই। একই সঙ্গে দোসর হয় নিউমোনিয়াও। বাড়ির ছোট থেকে বয়স্ক সদস্যরা শীতে নিউমোনিয়ার কবলে পড়তে পারেন সবাই।

ফুসফুস সংক্রমণের কারণেই মূলত নিউমোনিয়া হয়। তবে শুরুতে এর গুরুত্ব না দিলে পরে গুরুতর আকার ধারণ করতে পারে।

নিউমোনিয়ার প্রাথমিক লক্ষণ হলো অস্বাভাবিক জ্বর। এই জ্বর ক্রমশ বাড়তে থাকা নিউমোনিয়ার অন্যতম উপসর্গ। একই সঙ্গে কাশি, বুক মাথায় হালকা ব্যথা।

এই লক্ষণগুলো দেখলে অবশ্যই চিকিৎসকের সঙ্গে পরামর্শ করা জরুরি। তবে তার চেয়েও বেশি গুরুত্বপূর্ণ হলো নিউমোনিয়া থেকে নিজেকে সুরক্ষিত রাখা। তার জন্য মেনে চলতে হবে কয়েকটি নিয়ম-

হাত ধুতে হবে
বাইরে থেকে ফিরে হাত ধোয়ার অভ্যাস বজায় রাখুন। নিউমোনিয়া আটকানোর এর চেয়ে স্বাস্থ্যকর উপায় আর নেই। নিজেও সর্দি-কাশিতে ভুগলে বারবার হাত ধুয়ে নিন।

হাতে কোনো রকম জীবাণু জমতে দেবেন না। হাত না ধুয়ে মুখ, চোখ, নাকে হাত দেবেন না। খেতে বসার আগেও ভাল করে সাবান দিয়ে হাত ধুয়ে নেবেন।

গরম পোশাক পরুন
যাদে ঠান্ডা লাগার সমস্যা আছে, তারা শীতে সব সময় গরম পোশাক পরে থাকার চেষ্টা করুন। খেয়াল রাখুন যাতে কোনোভাবেই ঠান্ডা না লেগে যায়। গরম পানি পান করুন। রাতে বাইরে বের হলেও মাথা, কান মাফলারে মুড়িয়ে রাখুন।

পানি পান করুন
প্রচুর পরিমাণে পানি পান করুন। নিজেকে আর্দ্র না রাখলে যে কোনো অসুখ হানা দেবে শরীরে। সারাদিন অন্তত ৭-৮ গ্লাস পানি পান করুন। গরম পানিও খেতে পারেন। গলাব্যথা হলে স্বস্তি পাবেন।

পুষ্টিকর খাবার খান
স্বাস্থ্যকর খাবার খান। শীতকালে প্রচুর সবুজ শাকসবজি পাওয়া যায় বাজারে। প্রতিদিন খাবারের পাতে সেগুলো রাখুন। ফাইবার, ভিটামিন, কার্বোহাইড্রেটে সমৃদ্ধ খাবার শীতে অন্য রোগের সঙ্গে লড়াই করার শক্তি জোগায়।

সূত্র: হেলথলাইন/এনআইএইচ.গভ