ঢাকা , রবিবার, ২৩ জুন ২০২৪, ৯ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

ছক্কা মেরে গ্লাস ভাঙলেন রিংকু

  • ডেস্ক :
  • আপডেট সময় ১১:০৭ পূর্বাহ্ন, বুধবার, ১৩ ডিসেম্বর ২০২৩
  • 92

লম্বা সময় ধরে ভারতের ফিনিশার রোলে খেলেছেন মহেন্দ্র সিং ধোনি আর রবীন্দ্র জাদেজা। ধোনির ক্যারিয়ারের শেষবেলায় তাতে যুক্ত হয়েছেন হার্দিক পান্ডিয়া। ধোনি এখন অবসরে, জাদেজাও প্রায় গোধূলিলগ্নে। ফিনিশার রোলে হার্দিকের সঙ্গে আরও একজনের দরকার ছিল ভারতের। সেটা হয়ত এরইমাঝে পেয়ে গিয়েছে ম্যান ইন ব্লুরা।

তিনি গত আইপিএলে কলকাতার নায়ক রিংকু সিং।সম্প্রতি ভারতের টি-টোয়েন্টি দলের নিয়মিত মুখ হয়ে উঠছেন রিংকু। গত আইপিএলে পাঁচ বলে পাঁচ ছক্কা হাঁকিয়ে নজরে এসেছিলেন তিনি। স্বাভাবিকভাবেই শর্টার ভার্সনে তাকে মাঠে নামাতে খুব বেশি ভাবতে হয়নি ভারতীয় নির্বাচকদের। অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে ম্যাচগুলোতে শেষের দিকে নেমে ঝড়ো ইনিংস খেলেছেন। ঠিক যেমনটা ছিল প্রত্যাশিত। তবে দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে গতকাল খেলেছেন আরও পরিণত ইনিংস।

গতকাল মঙ্গলবার সেন্ট জর্জ পার্কে দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে যখন ক্রিজে নেমেছেন তখন দলের অবস্থা খুব বেশি ভালো নয়। ৫৫ রানেই ভারত হারিয়েছে ৩ উইকেট। স্বাভাবিকভাবেই দরকার ছিল ক্রিজে সেট হওয়ার। তরুণ রিংকু সেই কাজই করেছেন। অপরপ্রান্তে আগ্রাসী মেজাজে থাকা অধিনায়ক সূর্যকুমার যাদবকে সঙ্গ দিয়েছেন।

এরপর সূর্যকুমার আউট হলে নিজেই ইনিংস বড় করার দায়িত্ব নেন। বয়সে নবীন হলেও রিংকুর ক্রিকেটবোধ ঠিক কতখানি পরিমিত তাই টের পাওয়া গেল এদিন। এদিন রিংকু সিং মাত্র ৩৯ বলে অপরাজিত ৬৮ রান করেছিলেন। এদিন তিনি ৯টি চার ও ২টি ছক্কা হাঁকিয়েছিলেন। ১৭৪.৩৬ স্ট্রাইক রেটে ব্যাট চালিয়ে দলের রান নিয়ে গিয়েছেন সম্মানজঙ্ক স্থানে।

তবে আলোচিত কাণ্ড ঘটিয়েছেন ইনিংসের শেষ দিকে। দক্ষিণ আফ্রিকার অধিনায়ক এডেন মার্করামের বলে ডাউন দ্য উইকেটে এসে ছক্কা হাঁকিয়েছিলেন রিংকু। সেই ছক্কাটি সোজা মাঠের মিডিয়া বক্সের কাঁচে গিয়ে লাগে ও সেটি ভেঙে যায়। ভাঙা কাচের সেই ছবি বর্তমানে সোশ্যাল মিডিয়াতে ভাইরাল হচ্ছে।

তবে রিংকুর এমন পরিণত ব্যাটিংয়ের দিনে ভারত জয়ের দেখা পায়নি। দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে বৃষ্টিবিঘ্নিত ম্যাচে ভারত হেরেছে ৫ উইকেটের ব্যবধানে। ১৯.৩ ওভারে ভারত তুলেছিল ১৮০ রান। দক্ষিণ আফ্রিকার সামনে তা হয়ে যায় ১৫ ওভারে ১৫২। তবে সেটাও ১৩.৫ ওভারে টপকে যায় প্রোটিয়ারা।

যদিও এমন জয়ের দিনেও সোশ্যাল মিডিয়াতে সবচেয়ে বেশি চর্চিত নাম রিংকু সিং। ম্যাচ হারলেও তার পরিণত ইনিংস নজরে এসেছে সকলেরই। টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপেও হয়ত নিজের জায়গাটা আরও অনেকখানি পোক্ত করে নিয়েছেন তিনি।

ট্যাগস

ছক্কা মেরে গ্লাস ভাঙলেন রিংকু

আপডেট সময় ১১:০৭ পূর্বাহ্ন, বুধবার, ১৩ ডিসেম্বর ২০২৩

লম্বা সময় ধরে ভারতের ফিনিশার রোলে খেলেছেন মহেন্দ্র সিং ধোনি আর রবীন্দ্র জাদেজা। ধোনির ক্যারিয়ারের শেষবেলায় তাতে যুক্ত হয়েছেন হার্দিক পান্ডিয়া। ধোনি এখন অবসরে, জাদেজাও প্রায় গোধূলিলগ্নে। ফিনিশার রোলে হার্দিকের সঙ্গে আরও একজনের দরকার ছিল ভারতের। সেটা হয়ত এরইমাঝে পেয়ে গিয়েছে ম্যান ইন ব্লুরা।

তিনি গত আইপিএলে কলকাতার নায়ক রিংকু সিং।সম্প্রতি ভারতের টি-টোয়েন্টি দলের নিয়মিত মুখ হয়ে উঠছেন রিংকু। গত আইপিএলে পাঁচ বলে পাঁচ ছক্কা হাঁকিয়ে নজরে এসেছিলেন তিনি। স্বাভাবিকভাবেই শর্টার ভার্সনে তাকে মাঠে নামাতে খুব বেশি ভাবতে হয়নি ভারতীয় নির্বাচকদের। অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে ম্যাচগুলোতে শেষের দিকে নেমে ঝড়ো ইনিংস খেলেছেন। ঠিক যেমনটা ছিল প্রত্যাশিত। তবে দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে গতকাল খেলেছেন আরও পরিণত ইনিংস।

গতকাল মঙ্গলবার সেন্ট জর্জ পার্কে দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে যখন ক্রিজে নেমেছেন তখন দলের অবস্থা খুব বেশি ভালো নয়। ৫৫ রানেই ভারত হারিয়েছে ৩ উইকেট। স্বাভাবিকভাবেই দরকার ছিল ক্রিজে সেট হওয়ার। তরুণ রিংকু সেই কাজই করেছেন। অপরপ্রান্তে আগ্রাসী মেজাজে থাকা অধিনায়ক সূর্যকুমার যাদবকে সঙ্গ দিয়েছেন।

এরপর সূর্যকুমার আউট হলে নিজেই ইনিংস বড় করার দায়িত্ব নেন। বয়সে নবীন হলেও রিংকুর ক্রিকেটবোধ ঠিক কতখানি পরিমিত তাই টের পাওয়া গেল এদিন। এদিন রিংকু সিং মাত্র ৩৯ বলে অপরাজিত ৬৮ রান করেছিলেন। এদিন তিনি ৯টি চার ও ২টি ছক্কা হাঁকিয়েছিলেন। ১৭৪.৩৬ স্ট্রাইক রেটে ব্যাট চালিয়ে দলের রান নিয়ে গিয়েছেন সম্মানজঙ্ক স্থানে।

তবে আলোচিত কাণ্ড ঘটিয়েছেন ইনিংসের শেষ দিকে। দক্ষিণ আফ্রিকার অধিনায়ক এডেন মার্করামের বলে ডাউন দ্য উইকেটে এসে ছক্কা হাঁকিয়েছিলেন রিংকু। সেই ছক্কাটি সোজা মাঠের মিডিয়া বক্সের কাঁচে গিয়ে লাগে ও সেটি ভেঙে যায়। ভাঙা কাচের সেই ছবি বর্তমানে সোশ্যাল মিডিয়াতে ভাইরাল হচ্ছে।

তবে রিংকুর এমন পরিণত ব্যাটিংয়ের দিনে ভারত জয়ের দেখা পায়নি। দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে বৃষ্টিবিঘ্নিত ম্যাচে ভারত হেরেছে ৫ উইকেটের ব্যবধানে। ১৯.৩ ওভারে ভারত তুলেছিল ১৮০ রান। দক্ষিণ আফ্রিকার সামনে তা হয়ে যায় ১৫ ওভারে ১৫২। তবে সেটাও ১৩.৫ ওভারে টপকে যায় প্রোটিয়ারা।

যদিও এমন জয়ের দিনেও সোশ্যাল মিডিয়াতে সবচেয়ে বেশি চর্চিত নাম রিংকু সিং। ম্যাচ হারলেও তার পরিণত ইনিংস নজরে এসেছে সকলেরই। টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপেও হয়ত নিজের জায়গাটা আরও অনেকখানি পোক্ত করে নিয়েছেন তিনি।