ঢাকা , বৃহস্পতিবার, ২৫ এপ্রিল ২০২৪, ১২ বৈশাখ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

এমবিবিএস ভর্তি পরীক্ষা ৯ ফেব্রুয়ারি, ডেন্টাল ১৮ মার্চ

  • ডেস্ক :
  • আপডেট সময় ০১:১৬ অপরাহ্ন, রবিবার, ২৪ ডিসেম্বর ২০২৩
  • 62

রোববার (২৪ ডিসেম্বর) দুপুরে সচিবালয়ে এক জরুরি সংবাদ সম্মেলনে স্বাস্থ্যমন্ত্রী এই ঘোষণা দেন।

২০২৩-২৪ শিক্ষাবর্ষে এমবিবিএস ভর্তি পরীক্ষা আগামী ৯ ফেব্রুয়ারি অনুষ্ঠিত হবে বলে জানিয়েছেন স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণমন্ত্রী জাহিদ মালেক। একইসঙ্গে ডেন্টাল ভর্তি পরীক্ষা আগামী ১৮ মার্চ অনুষ্ঠিত হবে বলেও তিনি জানান।

জাহিদ মালেক বলেন, আগামী ৯ ফেব্রুয়ারি আমরা এমবিবিএস ভর্তি পরীক্ষা নেব, একইসঙ্গে ১৮ মার্চ ডেন্টাল ভর্তি পরীক্ষা নেব। তবে পরীক্ষা উপলক্ষ্যে ৯ জানুয়ারি থেকে বন্ধ থাকবে সব মেডিকেল কোচিং।

  • ১১-২৩ জানুয়ারি অনলাইনে আবেদন। ফি জমা ২৪ জানুয়ারির মধ্যে।
  • সব কলেজের চয়েজ একবারে দিতে হবে।
  • ভর্তি পরীক্ষা ৯ ফেব্রুয়ারি সকাল ১০টায়।
  • ১৮ মার্চ ডেন্টাল ভর্তি পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে।
  • সরকারি আসন ৫৩৮০টি, বেড়েছে ১০৩০টি।
  • সরকারি বেসরকারী মিলিয়ে মোট ১১৭২৮টি সিট রয়েছে।
  • কোচিং বন্ধ হবে ৯ জানুয়ারি থেকে।
  • ভর্তি ফি বাড়েনি
  • পাস নম্বর ৪০ই থাকবে
  • দ্বিতীয়বার পরীক্ষা দিলে ১০ নম্বর কাটা।
ট্যাগস

এমবিবিএস ভর্তি পরীক্ষা ৯ ফেব্রুয়ারি, ডেন্টাল ১৮ মার্চ

আপডেট সময় ০১:১৬ অপরাহ্ন, রবিবার, ২৪ ডিসেম্বর ২০২৩

রোববার (২৪ ডিসেম্বর) দুপুরে সচিবালয়ে এক জরুরি সংবাদ সম্মেলনে স্বাস্থ্যমন্ত্রী এই ঘোষণা দেন।

২০২৩-২৪ শিক্ষাবর্ষে এমবিবিএস ভর্তি পরীক্ষা আগামী ৯ ফেব্রুয়ারি অনুষ্ঠিত হবে বলে জানিয়েছেন স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণমন্ত্রী জাহিদ মালেক। একইসঙ্গে ডেন্টাল ভর্তি পরীক্ষা আগামী ১৮ মার্চ অনুষ্ঠিত হবে বলেও তিনি জানান।

জাহিদ মালেক বলেন, আগামী ৯ ফেব্রুয়ারি আমরা এমবিবিএস ভর্তি পরীক্ষা নেব, একইসঙ্গে ১৮ মার্চ ডেন্টাল ভর্তি পরীক্ষা নেব। তবে পরীক্ষা উপলক্ষ্যে ৯ জানুয়ারি থেকে বন্ধ থাকবে সব মেডিকেল কোচিং।

  • ১১-২৩ জানুয়ারি অনলাইনে আবেদন। ফি জমা ২৪ জানুয়ারির মধ্যে।
  • সব কলেজের চয়েজ একবারে দিতে হবে।
  • ভর্তি পরীক্ষা ৯ ফেব্রুয়ারি সকাল ১০টায়।
  • ১৮ মার্চ ডেন্টাল ভর্তি পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে।
  • সরকারি আসন ৫৩৮০টি, বেড়েছে ১০৩০টি।
  • সরকারি বেসরকারী মিলিয়ে মোট ১১৭২৮টি সিট রয়েছে।
  • কোচিং বন্ধ হবে ৯ জানুয়ারি থেকে।
  • ভর্তি ফি বাড়েনি
  • পাস নম্বর ৪০ই থাকবে
  • দ্বিতীয়বার পরীক্ষা দিলে ১০ নম্বর কাটা।