ঢাকা , বৃহস্পতিবার, ২৫ এপ্রিল ২০২৪, ১২ বৈশাখ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

সহিংসতা একেবারেই হয়নি, সেটা বলছি না: সিইসি

  • ডেস্ক :
  • আপডেট সময় ০৩:৫৮ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২৮ ডিসেম্বর ২০২৩
  • 67

কিছু ক্ষেত্রে সহিংসতা, ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়া হলেও ভোটের মাঠে খুব বেশি ঘটনা ঘটছে না বলে জানিয়েছেন প্রধান নির্বাচন কমিশনার (সিইসি) কাজী হাবিবুল আউয়াল। তিনি বলেন, কিছু কিছু ক্ষেত্রে সহিংসতা, ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়া, পোস্টার ছেঁড়া- এগুলো হয়েছে। কিন্তু মোটাদাগে খুব বেশি ঘটনা ঘটেছে বলে মনে হয় না। তবে সহিংসতা একেবারেই হয়নি, সেটা বলছি না।

বৃহস্পতিবার (২৮ ডিসেম্বর) আগারগাঁও নির্বাচন ভবনে মানবাধিকার কমিশনের চেয়ারম্যানের সঙ্গে বৈঠক শেষ সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে সিইসি এসব কথা বলেন।

শাসক দলের প্রার্থীরা আচরণবিধি ভঙ্গ করছেন, আপনারা মানাতে পারছেন না কেন- এমন প্রশ্নের জবাবে কাজী হাবিবুল আউয়াল বলেন, আমরা মাঠপর্যায়ে সভা করেছি। তাদের কাছ থেকে খুব বেশি অভিযোগ পাইনি। প্রশাসনের ওপর তাদের আস্থা রয়েছে। আর কয়েকটা দিন আছে, আমরা আমাদের আবেদন রাখছি, প্রশাসনের সঙ্গে যোগাযোগ রাখছি, তারা যেন এটা কঠোরভাবে নিয়ন্ত্রণ করে। একটা সময় প্রচারণা বন্ধ হয়ে যাবে।

প্রধান নির্বাচন কমিশনার বলেন, ভোটের দিন পোলিং এজেন্টকে ভারসাম্য রক্ষা করতে হবে। সেখানে অবাঞ্ছিত লোক যাতে প্রবেশ করতে না পারে এবং গণমাধ্যম যদি অনিয়ম প্রচার করতে পারে, আমরা এটাকে স্বাগত জানাবো। তাহলে নির্বাচনের ক্রেডিবিলিটি বেড়ে যাবে এবং রং পারসেপশন (ভুল ধারণা) হওয়ার সুযোগ কম হবে। আমরা আশাবাদী।

ট্যাগস

সহিংসতা একেবারেই হয়নি, সেটা বলছি না: সিইসি

আপডেট সময় ০৩:৫৮ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২৮ ডিসেম্বর ২০২৩

কিছু ক্ষেত্রে সহিংসতা, ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়া হলেও ভোটের মাঠে খুব বেশি ঘটনা ঘটছে না বলে জানিয়েছেন প্রধান নির্বাচন কমিশনার (সিইসি) কাজী হাবিবুল আউয়াল। তিনি বলেন, কিছু কিছু ক্ষেত্রে সহিংসতা, ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়া, পোস্টার ছেঁড়া- এগুলো হয়েছে। কিন্তু মোটাদাগে খুব বেশি ঘটনা ঘটেছে বলে মনে হয় না। তবে সহিংসতা একেবারেই হয়নি, সেটা বলছি না।

বৃহস্পতিবার (২৮ ডিসেম্বর) আগারগাঁও নির্বাচন ভবনে মানবাধিকার কমিশনের চেয়ারম্যানের সঙ্গে বৈঠক শেষ সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে সিইসি এসব কথা বলেন।

শাসক দলের প্রার্থীরা আচরণবিধি ভঙ্গ করছেন, আপনারা মানাতে পারছেন না কেন- এমন প্রশ্নের জবাবে কাজী হাবিবুল আউয়াল বলেন, আমরা মাঠপর্যায়ে সভা করেছি। তাদের কাছ থেকে খুব বেশি অভিযোগ পাইনি। প্রশাসনের ওপর তাদের আস্থা রয়েছে। আর কয়েকটা দিন আছে, আমরা আমাদের আবেদন রাখছি, প্রশাসনের সঙ্গে যোগাযোগ রাখছি, তারা যেন এটা কঠোরভাবে নিয়ন্ত্রণ করে। একটা সময় প্রচারণা বন্ধ হয়ে যাবে।

প্রধান নির্বাচন কমিশনার বলেন, ভোটের দিন পোলিং এজেন্টকে ভারসাম্য রক্ষা করতে হবে। সেখানে অবাঞ্ছিত লোক যাতে প্রবেশ করতে না পারে এবং গণমাধ্যম যদি অনিয়ম প্রচার করতে পারে, আমরা এটাকে স্বাগত জানাবো। তাহলে নির্বাচনের ক্রেডিবিলিটি বেড়ে যাবে এবং রং পারসেপশন (ভুল ধারণা) হওয়ার সুযোগ কম হবে। আমরা আশাবাদী।