ঢাকা , রবিবার, ২৩ জুন ২০২৪, ৯ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

২৪ ঘণ্টায় আরো ২১০ ফিলিস্তিনি নিহত

  • ডেস্ক :
  • আপডেট সময় ১১:২৩ পূর্বাহ্ন, শুক্রবার, ২৯ ডিসেম্বর ২০২৩
  • 88

গাজায় ইসরায়েলি হামলায় প্রতিদিন শতশত ফিলিস্তিনি নিহত হচ্ছেন। গত বুধবার (২৭ ডিসেম্বর) থেকে বৃহস্পতিবার বিকালের মধ্যে ২৪ ঘণ্টার নিহত হয়েছেন কমপক্ষে ২১০ জন। এ সময় আহত হয়েছেন অন্তত ৩২৫ জন। খবর আল জাজিরা।

হামাস নিয়ন্ত্রিত অঞ্চলটির স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় জানিয়েছে, ইসরায়েলি সামরিক বাহিনীর দেয়া এলাকা ত্যাগের নির্দেশের পর ২৪ ঘণ্টা কমপক্ষে এক লাখ বাস্তুচ্যুত মানুষ রাফাহ শহরে ভিড় করেছে।

গতকাল বৃহস্পতিবার জাতিসংঘের মানবিক বিষয়ক সমন্বয়ের অফিস ইউএনওসিএইচএ গাজা সম্পর্কে বেশকিছু তথ্য উল্লেখ করেছে।

সেখানে বলা হয়, গাজার আশ্রয়কেন্দ্রে থাকা গর্ভবতীদের অর্ধেকই খাবার পানি সংকট, অপুষ্টি ও চিকিৎসা সংকটে ভুগছেন। বাস্তুচ্যুত শিশুদের অর্ধেক ডিহাইড্রেশন, অপুষ্টি, তীব্র ঠাণ্ডা, শ্বাসকষ্ট ও চর্মরোগে আক্রান্ত। নবজাতকরা হয়েছে ভীষণ ঝুঁকিতে, তাদের টিকা দেয়া যাচ্ছে না।

গাজার প্রায় ১৯ লাখ মানুষের ৮৫ শতাংশই ইসরায়েলের সামরিক আক্রমণে বাস্তুচ্যুত হয়েছেন।

গত ৭ অক্টোবর শুরু হওয়া হামলায় এ পর্যন্ত প্রায় ২২ হাজার ফিলিস্তিনি নিহত হয়েছেন, আহত হয়েছেন ৫৫ হাজারের মতো। এছাড়া নিখোঁজ রয়েছেন হাজার হাজার মানুষ।

মূল হামলা গাজায় হলেও অধিকৃত পশ্চিম তীর ও পূর্ব জেরুজালেমে থেমে নেয় ইসরায়েলের নিপীড়ন। ৭ অক্টোবর থেকে এখানে ইসরায়েলি সেনা ও বসতি স্থাপনকারীদের হামলায় ৭৯ শিশুসহ ৩০৪ ফিলিস্তিনি নিহত হয়েছেন। গত দুই দশকের মধ্যে চলতি বছরে অধিকৃত অঞ্চলে সবচেয়ে বেশি মানুষ নিহত হয়েছেন। জানুয়ারি থেকে মোট ৫০৪ জন নিহত হয়েছেন।

এদিকে গাজা আক্রমণ শুরু করার পর থেকে ১৬৫ জন ইসরায়েলি সেনা নিহত ও ৯২১ জন আহত হয়েছেন।

ট্যাগস

২৪ ঘণ্টায় আরো ২১০ ফিলিস্তিনি নিহত

আপডেট সময় ১১:২৩ পূর্বাহ্ন, শুক্রবার, ২৯ ডিসেম্বর ২০২৩

গাজায় ইসরায়েলি হামলায় প্রতিদিন শতশত ফিলিস্তিনি নিহত হচ্ছেন। গত বুধবার (২৭ ডিসেম্বর) থেকে বৃহস্পতিবার বিকালের মধ্যে ২৪ ঘণ্টার নিহত হয়েছেন কমপক্ষে ২১০ জন। এ সময় আহত হয়েছেন অন্তত ৩২৫ জন। খবর আল জাজিরা।

হামাস নিয়ন্ত্রিত অঞ্চলটির স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় জানিয়েছে, ইসরায়েলি সামরিক বাহিনীর দেয়া এলাকা ত্যাগের নির্দেশের পর ২৪ ঘণ্টা কমপক্ষে এক লাখ বাস্তুচ্যুত মানুষ রাফাহ শহরে ভিড় করেছে।

গতকাল বৃহস্পতিবার জাতিসংঘের মানবিক বিষয়ক সমন্বয়ের অফিস ইউএনওসিএইচএ গাজা সম্পর্কে বেশকিছু তথ্য উল্লেখ করেছে।

সেখানে বলা হয়, গাজার আশ্রয়কেন্দ্রে থাকা গর্ভবতীদের অর্ধেকই খাবার পানি সংকট, অপুষ্টি ও চিকিৎসা সংকটে ভুগছেন। বাস্তুচ্যুত শিশুদের অর্ধেক ডিহাইড্রেশন, অপুষ্টি, তীব্র ঠাণ্ডা, শ্বাসকষ্ট ও চর্মরোগে আক্রান্ত। নবজাতকরা হয়েছে ভীষণ ঝুঁকিতে, তাদের টিকা দেয়া যাচ্ছে না।

গাজার প্রায় ১৯ লাখ মানুষের ৮৫ শতাংশই ইসরায়েলের সামরিক আক্রমণে বাস্তুচ্যুত হয়েছেন।

গত ৭ অক্টোবর শুরু হওয়া হামলায় এ পর্যন্ত প্রায় ২২ হাজার ফিলিস্তিনি নিহত হয়েছেন, আহত হয়েছেন ৫৫ হাজারের মতো। এছাড়া নিখোঁজ রয়েছেন হাজার হাজার মানুষ।

মূল হামলা গাজায় হলেও অধিকৃত পশ্চিম তীর ও পূর্ব জেরুজালেমে থেমে নেয় ইসরায়েলের নিপীড়ন। ৭ অক্টোবর থেকে এখানে ইসরায়েলি সেনা ও বসতি স্থাপনকারীদের হামলায় ৭৯ শিশুসহ ৩০৪ ফিলিস্তিনি নিহত হয়েছেন। গত দুই দশকের মধ্যে চলতি বছরে অধিকৃত অঞ্চলে সবচেয়ে বেশি মানুষ নিহত হয়েছেন। জানুয়ারি থেকে মোট ৫০৪ জন নিহত হয়েছেন।

এদিকে গাজা আক্রমণ শুরু করার পর থেকে ১৬৫ জন ইসরায়েলি সেনা নিহত ও ৯২১ জন আহত হয়েছেন।