ঢাকা , বুধবার, ২৪ জুলাই ২০২৪, ৮ শ্রাবণ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

সিনেমার প্রচারে গিয়ে শ্লীলতাহানির শিকার সঞ্চালিকা

  • ডেস্ক :
  • আপডেট সময় ০৫:০৮ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ৪ জানুয়ারী ২০২৪
  • 100

তামিল সিনেমা ইন্ডাস্ট্রির জনপ্রিয় অভিনেতা ধানুশের সিনেমার প্রচারে গিয়ে শ্লীলতাহানির শিকার হলেন সঞ্চালিক ঐশ্বরিয়া রঘুপতি। সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হয়েছে এ ঘটনার ভিডিও।

ভারতীয় সংবাদমাধ্যমের খবরে বলাহ হয়েছে, ধানুশের নতুন সিনেমা ‘ক্যাপ্টেন মিলার’ আগামী ১২ জানুয়ারি মুক্তি পেতে যাচ্ছে। এ উপলক্ষে বুধবার (৩ জানুয়ারি) চেন্নাইয়ের নেতাজি ইন্ডোর স্টেডিয়ামে সিনেমাটির প্রচারে বিশেষ অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। আর এ অনুষ্ঠানেই দর্শকের ভিড়ে শ্লীলতাহানির শিকার হন সঞ্চালিকা ঐশ্বরিয়া।

সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হওয়া ভিডিওতে দেখা গেছে, ভিড়ের মধ্যে ঐশ্বরিয়ার গায়ে অশালীনভাবে হাত দেয় এক ব্যক্তি। ঐশ্বরিয়া সঙ্গে সঙ্গে প্রতিবাদ করেন। ওই ব্যক্তির গালে চড় মারেন। শেষমেশ, ঐশ্বরিয়ার পা ধরে ক্ষমা চাইতে বাধ্য হন ব্যক্তি। পুরো বিষয়টি ইনস্টাগ্রামের স্টোরিতে তুলে ধরেছেন সঞ্চালিকা।

ঐশ্বরিয়াা সোশাল মিডিয়ায় লিখেছেন, ‘ভিড়ের মধ্যে এক ব্যক্তি আমার শরীরে অশালীনভাবে হাত দেয়। ভয় পায়নি আমি। বরং প্রতিবাদ করেছি। চড় মেরেছি। পালাতে গিয়েছিল, কিন্তু আমি পিছু নিয়ে ধরেছি। আবার মেরেছি। আমার মনে হয় এরপর আর কোনও মেয়ের শরীরে হাত দেবে না ব্যক্তি। এটা সব নোংরা মানসিকতার ব্যক্তির জন্যই উচিত শিক্ষা।’

ট্যাগস

সিনেমার প্রচারে গিয়ে শ্লীলতাহানির শিকার সঞ্চালিকা

আপডেট সময় ০৫:০৮ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ৪ জানুয়ারী ২০২৪

তামিল সিনেমা ইন্ডাস্ট্রির জনপ্রিয় অভিনেতা ধানুশের সিনেমার প্রচারে গিয়ে শ্লীলতাহানির শিকার হলেন সঞ্চালিক ঐশ্বরিয়া রঘুপতি। সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হয়েছে এ ঘটনার ভিডিও।

ভারতীয় সংবাদমাধ্যমের খবরে বলাহ হয়েছে, ধানুশের নতুন সিনেমা ‘ক্যাপ্টেন মিলার’ আগামী ১২ জানুয়ারি মুক্তি পেতে যাচ্ছে। এ উপলক্ষে বুধবার (৩ জানুয়ারি) চেন্নাইয়ের নেতাজি ইন্ডোর স্টেডিয়ামে সিনেমাটির প্রচারে বিশেষ অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। আর এ অনুষ্ঠানেই দর্শকের ভিড়ে শ্লীলতাহানির শিকার হন সঞ্চালিকা ঐশ্বরিয়া।

সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হওয়া ভিডিওতে দেখা গেছে, ভিড়ের মধ্যে ঐশ্বরিয়ার গায়ে অশালীনভাবে হাত দেয় এক ব্যক্তি। ঐশ্বরিয়া সঙ্গে সঙ্গে প্রতিবাদ করেন। ওই ব্যক্তির গালে চড় মারেন। শেষমেশ, ঐশ্বরিয়ার পা ধরে ক্ষমা চাইতে বাধ্য হন ব্যক্তি। পুরো বিষয়টি ইনস্টাগ্রামের স্টোরিতে তুলে ধরেছেন সঞ্চালিকা।

ঐশ্বরিয়াা সোশাল মিডিয়ায় লিখেছেন, ‘ভিড়ের মধ্যে এক ব্যক্তি আমার শরীরে অশালীনভাবে হাত দেয়। ভয় পায়নি আমি। বরং প্রতিবাদ করেছি। চড় মেরেছি। পালাতে গিয়েছিল, কিন্তু আমি পিছু নিয়ে ধরেছি। আবার মেরেছি। আমার মনে হয় এরপর আর কোনও মেয়ের শরীরে হাত দেবে না ব্যক্তি। এটা সব নোংরা মানসিকতার ব্যক্তির জন্যই উচিত শিক্ষা।’