ঢাকা , বৃহস্পতিবার, ২৫ এপ্রিল ২০২৪, ১২ বৈশাখ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

জাতিসংঘের হেলিকপ্টার আটক করলেন আল-শাবাব

  • ডেস্ক :
  • আপডেট সময় ১০:৫৫ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ১১ জানুয়ারী ২০২৪
  • 62

পূর্ব আফ্রিকার দেশ সোমালিয়ায় জাতিসংঘের একটি হেলিকপ্টার জব্দ করে নিয়ে গেছে দেশটির সশস্ত্র গোষ্ঠী আল-শাবাব। এ সময় হেলিকপ্টারে ৯ জন আরোহী ছিলেন।

বৃহস্পতিবার (১১ জানুয়ারি) রয়টার্সের এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, জাতিসংঘ মিশনের হেলিকপ্টারটি মধ্য সোমালিয়ায় আল-শাবাব নিয়ন্ত্রণাধীন এলাকায় জরুরি অবতরণ করেছিল। এরপর সশস্ত্র গোষ্ঠীর সদস্যরা হেলিকপ্টারটি দখল নেয় এবং যাত্রীদেরও আটক করে। স্থানীয় সময় বুধবার বিকেলে এই ঘটনা ঘটে।

সোমালিয়ার সামরিক কর্মকর্তা মেজর হাসান আলী রয়টার্সকে বলেছেন, মধ্য সোমালিয়ার বেলেডওয়েইন শহর থেকে উড্ডয়নের পরপরই বিমানটি ত্রুটির সম্মুখীন হয় এবং গালগুডুড অঞ্চলের সীমান্তবর্তী হিন্দেরে গ্রামের কাছে জরুরি অবতরণ করে।

তিনি জানিয়েছেন, বেশ কয়েকজন বিদেশি ও দুজন স্থানীয় ব্যক্তি হেলিকপ্টারটিতে ছিলেন। এতে চিকিৎসা সামগ্রীও ছিল। এ হেলিকপ্টারে করে গালগাদুদ অঞ্চল থেকে আহত সেনাদের নিয়ে যাওয়ার কথা ছিল।

সোমালিয়ায় জাতিসংঘের মিশন (আনসম) দেশটিতে ‘জাতিসংঘের চুক্তিবদ্ধ হেলিকপ্টার জড়িত একটি ঘটনার’ কথা নিশ্চিত করেছে। সংস্থাটি বলেছে, কী ঘটেছে সে সম্পর্কে তারা তথ্য সংগ্রহ করছে এবং এ ঘটনায় প্রতিক্রিয়া জানানোর প্রচেষ্টা চলছে।

বিষয়টির সাথে পরিচিত জাতিসংঘের দুটি সূত্র রয়টার্সকে জানিয়েছেন, বিমানটিতে নয়জন যাত্রী ছিল।

আল শাবাবের হাতে আটক ব্যক্তিদের পরিচয় বা তাদের জাতীয়তা স্বাধীনভাবে যাচাই করতে পারেনি রয়টার্স।

দক্ষিণ ও মধ্য সোমালিয়ার বড় একটি অংশ নিয়ন্ত্রণ করে আল-শাবাব। আল-কায়েদার সাথে গোষ্ঠীটির সম্পৃক্ত রয়েছে। প্রায় ২০ বছর ধরে দেশের পশ্চিমাপন্থি সরকার হঠাতে লড়াই চালিয়ে আসছে তারা।

ট্যাগস

জাতিসংঘের হেলিকপ্টার আটক করলেন আল-শাবাব

আপডেট সময় ১০:৫৫ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ১১ জানুয়ারী ২০২৪

পূর্ব আফ্রিকার দেশ সোমালিয়ায় জাতিসংঘের একটি হেলিকপ্টার জব্দ করে নিয়ে গেছে দেশটির সশস্ত্র গোষ্ঠী আল-শাবাব। এ সময় হেলিকপ্টারে ৯ জন আরোহী ছিলেন।

বৃহস্পতিবার (১১ জানুয়ারি) রয়টার্সের এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, জাতিসংঘ মিশনের হেলিকপ্টারটি মধ্য সোমালিয়ায় আল-শাবাব নিয়ন্ত্রণাধীন এলাকায় জরুরি অবতরণ করেছিল। এরপর সশস্ত্র গোষ্ঠীর সদস্যরা হেলিকপ্টারটি দখল নেয় এবং যাত্রীদেরও আটক করে। স্থানীয় সময় বুধবার বিকেলে এই ঘটনা ঘটে।

সোমালিয়ার সামরিক কর্মকর্তা মেজর হাসান আলী রয়টার্সকে বলেছেন, মধ্য সোমালিয়ার বেলেডওয়েইন শহর থেকে উড্ডয়নের পরপরই বিমানটি ত্রুটির সম্মুখীন হয় এবং গালগুডুড অঞ্চলের সীমান্তবর্তী হিন্দেরে গ্রামের কাছে জরুরি অবতরণ করে।

তিনি জানিয়েছেন, বেশ কয়েকজন বিদেশি ও দুজন স্থানীয় ব্যক্তি হেলিকপ্টারটিতে ছিলেন। এতে চিকিৎসা সামগ্রীও ছিল। এ হেলিকপ্টারে করে গালগাদুদ অঞ্চল থেকে আহত সেনাদের নিয়ে যাওয়ার কথা ছিল।

সোমালিয়ায় জাতিসংঘের মিশন (আনসম) দেশটিতে ‘জাতিসংঘের চুক্তিবদ্ধ হেলিকপ্টার জড়িত একটি ঘটনার’ কথা নিশ্চিত করেছে। সংস্থাটি বলেছে, কী ঘটেছে সে সম্পর্কে তারা তথ্য সংগ্রহ করছে এবং এ ঘটনায় প্রতিক্রিয়া জানানোর প্রচেষ্টা চলছে।

বিষয়টির সাথে পরিচিত জাতিসংঘের দুটি সূত্র রয়টার্সকে জানিয়েছেন, বিমানটিতে নয়জন যাত্রী ছিল।

আল শাবাবের হাতে আটক ব্যক্তিদের পরিচয় বা তাদের জাতীয়তা স্বাধীনভাবে যাচাই করতে পারেনি রয়টার্স।

দক্ষিণ ও মধ্য সোমালিয়ার বড় একটি অংশ নিয়ন্ত্রণ করে আল-শাবাব। আল-কায়েদার সাথে গোষ্ঠীটির সম্পৃক্ত রয়েছে। প্রায় ২০ বছর ধরে দেশের পশ্চিমাপন্থি সরকার হঠাতে লড়াই চালিয়ে আসছে তারা।