ঢাকা , সোমবার, ২২ এপ্রিল ২০২৪, ৮ বৈশাখ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

শিকাগোতে বাড়িতে ঢুকে তরুণের গুলি, সাতজনের মৃত্যু

  • ডেস্ক :
  • আপডেট সময় ০২:০১ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ২৩ জানুয়ারী ২০২৪
  • 45

যুক্তরাষ্ট্রের শিকাগোতে কয়েক ঘণ্টার ব্যবধানে দুইটি বাড়িতে ঢুকে গুলি চালিয়ে সাতজন হত্যা করেছে বন্দুকধারী এক যুবক। পুলিশ জানিয়েছে, ওই যুবকের নাম রোমিও ন্যান্স এবং সে এখনও পলাতক রয়েছেন। ন্য়ান্সের ছবি ও তার গাড়ির ছবি প্রকাশ করেছে পুলিশ।

এনডিটিভির খবরে বলা হয়েছে, ইলিনয়ের জোলিয়েট পুলিশ বিভাগ স্থানীয় সময় সোমবার সন্ধ্যায় এ তথ্য জানিয়েছেন।

জোলিয়েট পুলিশ বিভাগ এক প্রেস বিবৃতিতে জানিয়েছে, ওয়েস্ট একর রোডের একটি বাড়ি থেকে গুলিবিদ্ধ অবস্থায় পাঁচজনের মরদেহ ও আরেকটি বাড়ি থেকে দুইজনের মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে। রোববার (২১ জানুয়ারি) এই হত্যাকাণ্ডের ঘটনা ঘটে।

এই সব হত্যাকাণ্ডের জন্য ন্যান্সই দায়ী বলে মনে করছে জোলিয়েট পুলিশ বিভাগ। সোমবার দিনভর তার খোঁজে বিভিন্ন স্থানে তল্লাশি চালিয়েছে তারা।

পুলিশ জানিয়েছে, কেউ তাকে দেখলে যেন সঙ্গে সঙ্গে তাদের জানানো হয়। পুলিশ জানিয়েছে, ন্যান্সের বয়স ২৩ বছর।

কী কারণে সন্দেহভাজন এতোগুলো মানুষকে মেরেছে তা নিয়ে তাৎক্ষণিকভাবে কোনো মন্তব্য করেনি পুলিশ। তবে নিহতরা সবাই ন্যান্সের পূর্বপরিচিত ছিল বলে সোমবার সন্ধ্যায় এক সংবাদ সম্মেলনে জানিয়েছেন পুলিশ কর্মকর্তারা।

প্রসঙ্গত, যুক্তরাষ্ট্রে একের পর এক বন্দুক হামলার ঘটনা ঘটছে। অলাভজনক সংস্থা গান ভায়োলেন্স আর্কাইভের দেয়া হিসাব হলো, জানুয়ারির প্রথম তিন সপ্তাহে বন্দুকধারীর গুলিতে শতাধিক মানুষ মারা গেছেন।

ট্যাগস

শিকাগোতে বাড়িতে ঢুকে তরুণের গুলি, সাতজনের মৃত্যু

আপডেট সময় ০২:০১ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ২৩ জানুয়ারী ২০২৪

যুক্তরাষ্ট্রের শিকাগোতে কয়েক ঘণ্টার ব্যবধানে দুইটি বাড়িতে ঢুকে গুলি চালিয়ে সাতজন হত্যা করেছে বন্দুকধারী এক যুবক। পুলিশ জানিয়েছে, ওই যুবকের নাম রোমিও ন্যান্স এবং সে এখনও পলাতক রয়েছেন। ন্য়ান্সের ছবি ও তার গাড়ির ছবি প্রকাশ করেছে পুলিশ।

এনডিটিভির খবরে বলা হয়েছে, ইলিনয়ের জোলিয়েট পুলিশ বিভাগ স্থানীয় সময় সোমবার সন্ধ্যায় এ তথ্য জানিয়েছেন।

জোলিয়েট পুলিশ বিভাগ এক প্রেস বিবৃতিতে জানিয়েছে, ওয়েস্ট একর রোডের একটি বাড়ি থেকে গুলিবিদ্ধ অবস্থায় পাঁচজনের মরদেহ ও আরেকটি বাড়ি থেকে দুইজনের মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে। রোববার (২১ জানুয়ারি) এই হত্যাকাণ্ডের ঘটনা ঘটে।

এই সব হত্যাকাণ্ডের জন্য ন্যান্সই দায়ী বলে মনে করছে জোলিয়েট পুলিশ বিভাগ। সোমবার দিনভর তার খোঁজে বিভিন্ন স্থানে তল্লাশি চালিয়েছে তারা।

পুলিশ জানিয়েছে, কেউ তাকে দেখলে যেন সঙ্গে সঙ্গে তাদের জানানো হয়। পুলিশ জানিয়েছে, ন্যান্সের বয়স ২৩ বছর।

কী কারণে সন্দেহভাজন এতোগুলো মানুষকে মেরেছে তা নিয়ে তাৎক্ষণিকভাবে কোনো মন্তব্য করেনি পুলিশ। তবে নিহতরা সবাই ন্যান্সের পূর্বপরিচিত ছিল বলে সোমবার সন্ধ্যায় এক সংবাদ সম্মেলনে জানিয়েছেন পুলিশ কর্মকর্তারা।

প্রসঙ্গত, যুক্তরাষ্ট্রে একের পর এক বন্দুক হামলার ঘটনা ঘটছে। অলাভজনক সংস্থা গান ভায়োলেন্স আর্কাইভের দেয়া হিসাব হলো, জানুয়ারির প্রথম তিন সপ্তাহে বন্দুকধারীর গুলিতে শতাধিক মানুষ মারা গেছেন।