ঢাকা , রবিবার, ২৩ জুন ২০২৪, ৯ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

হৃত্বিক রোশন, দীপিকা ‘ফাইটার’ সিনেমার যেসব দৃশ্য কাটার নির্দেশ

  • ডেস্ক :
  • আপডেট সময় ০৩:১২ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ২৩ জানুয়ারী ২০২৪
  • 80

বলিউড তারকা হৃত্বিক-দীপিকার ‘ফাইটার’ সিনেমা নিয়ে ভক্তদের মাঝে চলছে তুমুল উত্তেজনা। চলতি বছরের বিশাল বাজেটের সিনেমার অন্যতম এ ‍জুটির অভিনীত ‘ফাইটার’ । এখন সবাই এ সিনেমার বক্স অফিস কালেকশনের দিকে তাকিয়ে আছেন।

এরই মধ্যে শুরু হয়েছে এ সিনেমার টিকিটের অগ্রিম বুকিং। জানা গেছে, টিকিট বিক্রিও হচ্ছে ব্যাপক পরিমাণে। কিন্তু এবার শোনা গেল সেন্সর বোর্ডের কাঁচি চালানো হয়েছে ‘ফাইটার’র সিনেমার বেশ কিছু দৃশ্যে।

সিনেমা মুক্তির আগে রিভিউ শেষ করল সেন্ট্রাল বোর্ড অফ ফিল্ম সার্টিফিকেশন। সিদ্ধার্থ আনন্দের ‘মারফ্লিক্স এন্টারটেনমেন্ট’ ও ‘ভায়াকম ১৮ স্টুডিওজ’র তৈরি ‘ফাইটার’ হচ্ছে ভারতের প্রথম অ্যারিয়াল অ্যাকশন ফিল্ম।

হৃত্বিক রোশন, দীপিকা পাড়ুকোন, অনিল কাপুরের এ সিনেমায় অন্যতম তিন গুরুত্বপূর্ণ চরিত্রে অভিনয় করছেন। ভারত ও পাকিস্তানের মধ্যে দ্বন্দ্ব, লড়াই নিয়ে তৈরি এ সিনেমার অভিনেতারা মূলত ফাইটার পাইলটের চরিত্রে অভিনয় করেছেন।

ভারতীয় বিভিন্ন গণমাধ্যম সূত্রে জানা গেছে, সেন্ট্রাল বোর্ড অফ ফিল্ম সার্টিফিকেশন এ সিনেমায় মোট ৪টি কাটের দৃশ্য নির্দেশ দিয়েছে। ‘ধূমপান বিরোধী সতর্কবার্তা’ হিন্দিতে উল্লেখ করতে বলা হয়েছে বলেও জানা যাচ্ছে। বেশ কিছু সংলাপে খারাপ কথা বা ‘খারাপ শব্দ’ মিউট করে দেওয়া হয়েছে বা পরিবর্তন করে ফেলা হবে।

এর মধ্যে একটি ছিল সিনেমার ৫৩ মিনিটের মাথায় এবং অপরটি ১ ঘণ্টা ১৮ মিনিটের মাথায়। ‘সিবিএফসি’ (সেন্ট্রাল বোর্ড অফ ফিল্ম সার্টিফিকেশন) সিনেমার নির্মাতাদের কিছু ‘যৌন ইঙ্গিতকারী দৃশ্য’ সরিয়ে ফেলতে বলেছে বলেও জানা যাচ্ছে।

টিভিতে খবর দেখা যাচ্ছে এমন দৃশ্যগুলোকে শুধুমাত্র অডিও দিয়ে পরিবর্তন করতে বলা হয়েছে। এসব কাটছাঁটের পর ‘ফাইটার’ সিনেমাটি ইউ/এম ছাড়পত্র পেয়েছে। শুক্রবার এ ঘটনা ঘটেছে। ‘ফাইটার’ সিনেমাটি ২ ঘণ্টা ৪৬ মিনিট সময়সীমার। আসছে ২৫ জানুয়ারি মুক্তি পাবে এ সিনেমা।

গত বছর ২৫ জানুয়ারি মুক্তি পাওয়া ‘পাঠান’ সিনেমার পর দ্বিতীয়বার সিদ্ধার্থ আনন্দ ও দীপিকা পাড়ুকোন সিনেমাও এবার সেন্সর বোর্ডের দৃশ্য কাটার মুখে পড়ল। ‘পাঠান’ সিনেমা ‘বেশরম রং’ গানটির জন্য সেন্সর বোর্ডে ধাক্কা খেয়েছিল শাহরুখের সিনেমা। কিছু নির্দিষ্ট দৃশ্য বাদ দিয়ে অন্য শট দিয়ে গানটি রাখা হয় সিনেমায়।

ট্যাগস

হৃত্বিক রোশন, দীপিকা ‘ফাইটার’ সিনেমার যেসব দৃশ্য কাটার নির্দেশ

আপডেট সময় ০৩:১২ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ২৩ জানুয়ারী ২০২৪

বলিউড তারকা হৃত্বিক-দীপিকার ‘ফাইটার’ সিনেমা নিয়ে ভক্তদের মাঝে চলছে তুমুল উত্তেজনা। চলতি বছরের বিশাল বাজেটের সিনেমার অন্যতম এ ‍জুটির অভিনীত ‘ফাইটার’ । এখন সবাই এ সিনেমার বক্স অফিস কালেকশনের দিকে তাকিয়ে আছেন।

এরই মধ্যে শুরু হয়েছে এ সিনেমার টিকিটের অগ্রিম বুকিং। জানা গেছে, টিকিট বিক্রিও হচ্ছে ব্যাপক পরিমাণে। কিন্তু এবার শোনা গেল সেন্সর বোর্ডের কাঁচি চালানো হয়েছে ‘ফাইটার’র সিনেমার বেশ কিছু দৃশ্যে।

সিনেমা মুক্তির আগে রিভিউ শেষ করল সেন্ট্রাল বোর্ড অফ ফিল্ম সার্টিফিকেশন। সিদ্ধার্থ আনন্দের ‘মারফ্লিক্স এন্টারটেনমেন্ট’ ও ‘ভায়াকম ১৮ স্টুডিওজ’র তৈরি ‘ফাইটার’ হচ্ছে ভারতের প্রথম অ্যারিয়াল অ্যাকশন ফিল্ম।

হৃত্বিক রোশন, দীপিকা পাড়ুকোন, অনিল কাপুরের এ সিনেমায় অন্যতম তিন গুরুত্বপূর্ণ চরিত্রে অভিনয় করছেন। ভারত ও পাকিস্তানের মধ্যে দ্বন্দ্ব, লড়াই নিয়ে তৈরি এ সিনেমার অভিনেতারা মূলত ফাইটার পাইলটের চরিত্রে অভিনয় করেছেন।

ভারতীয় বিভিন্ন গণমাধ্যম সূত্রে জানা গেছে, সেন্ট্রাল বোর্ড অফ ফিল্ম সার্টিফিকেশন এ সিনেমায় মোট ৪টি কাটের দৃশ্য নির্দেশ দিয়েছে। ‘ধূমপান বিরোধী সতর্কবার্তা’ হিন্দিতে উল্লেখ করতে বলা হয়েছে বলেও জানা যাচ্ছে। বেশ কিছু সংলাপে খারাপ কথা বা ‘খারাপ শব্দ’ মিউট করে দেওয়া হয়েছে বা পরিবর্তন করে ফেলা হবে।

এর মধ্যে একটি ছিল সিনেমার ৫৩ মিনিটের মাথায় এবং অপরটি ১ ঘণ্টা ১৮ মিনিটের মাথায়। ‘সিবিএফসি’ (সেন্ট্রাল বোর্ড অফ ফিল্ম সার্টিফিকেশন) সিনেমার নির্মাতাদের কিছু ‘যৌন ইঙ্গিতকারী দৃশ্য’ সরিয়ে ফেলতে বলেছে বলেও জানা যাচ্ছে।

টিভিতে খবর দেখা যাচ্ছে এমন দৃশ্যগুলোকে শুধুমাত্র অডিও দিয়ে পরিবর্তন করতে বলা হয়েছে। এসব কাটছাঁটের পর ‘ফাইটার’ সিনেমাটি ইউ/এম ছাড়পত্র পেয়েছে। শুক্রবার এ ঘটনা ঘটেছে। ‘ফাইটার’ সিনেমাটি ২ ঘণ্টা ৪৬ মিনিট সময়সীমার। আসছে ২৫ জানুয়ারি মুক্তি পাবে এ সিনেমা।

গত বছর ২৫ জানুয়ারি মুক্তি পাওয়া ‘পাঠান’ সিনেমার পর দ্বিতীয়বার সিদ্ধার্থ আনন্দ ও দীপিকা পাড়ুকোন সিনেমাও এবার সেন্সর বোর্ডের দৃশ্য কাটার মুখে পড়ল। ‘পাঠান’ সিনেমা ‘বেশরম রং’ গানটির জন্য সেন্সর বোর্ডে ধাক্কা খেয়েছিল শাহরুখের সিনেমা। কিছু নির্দিষ্ট দৃশ্য বাদ দিয়ে অন্য শট দিয়ে গানটি রাখা হয় সিনেমায়।