ঢাকা , বৃহস্পতিবার, ২৫ এপ্রিল ২০২৪, ১২ বৈশাখ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

আন্তর্জাতিক প্লাস্টিক মেলা শুরু

  • ডেস্ক :
  • আপডেট সময় ০৩:২৩ অপরাহ্ন, বুধবার, ২৪ জানুয়ারী ২০২৪
  • 50

দেশ-বিদেশের ৬৫৪টি প্রতিষ্ঠানের ৯৬১টি স্টল নিয়ে শুরু হয়েছে চার দিনব্যাপী ১৬তম আন্তর্জাতিক প্লাস্টিক মেলা। প্রতিষ্ঠানগুলো বিভিন্ন ধরনের প্লাস্টিক পণ্য ও প্লাস্টিক পণ্য উৎপাদনের প্রয়োজনীয় আধুনিক যন্ত্রপাতি প্রদর্শন করছে।

আজ বুধবার (২৪ জানুয়ারি) রাজধানীর ইন্টারন্যাশনাল কনভেনশন সিটি, বসুন্ধরায় (আইসিসিবি) শিল্পমন্ত্রী নূরুল মজিদ মাহমুদ হুমায়ূন এই প্লাস্টিক মেলা উদ্বোধন করেন।

বাংলাদেশ প্লাস্টিক পণ্য প্রস্তুতকারক ও রপ্তানিকারক সমিতি (বিপিজিএমইএ) এবং ইয়র্কারস ট্রেড অ্যান্ড মার্কেটিং সার্ভিসেস কোম্পানি লিমিটেড যৌথভাবে এ মেলার আয়োজন করেছে।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে শিল্পমন্ত্রী নূরুল মজিদ মাহমুদ হুমায়ূন বলেন, আন্তর্জাতিক এ মেলা আমাদের বড় রকমের দিকনির্দেশনা দেয়। আমাদের অভ্যন্তরীণ মার্কেটও গুরুত্বপূর্ণ মার্কেট। শিল্প মন্ত্রণালয়ের অধীনে প্লাস্টিক শিল্প নগরী হচ্ছে, ক্ষুদ্র শিল্প নগরী হচ্ছে। আমি বিশ্বাস করি এই সরকারের আমলে আপনারা এই সুযোগ সুবিধাগুলো পাবেন।

অনুষ্ঠানে বিশ্ব ব্যাংকের সিনিয়র প্রাইভেট সেক্টর স্পেশালিস্ট এম এস হোসনা ফেরদাউস সুমি বলেন, ১ দশমিক ২ মিলিয়ন কর্মীর কর্মসংস্থানে এ সেক্টর জড়িত। প্রতিযোগিতায় মূলত বৈশ্বিক বাজারের জন্য আমাদের প্রস্তুত থাকা দরকার। বৈশ্বিক বাজারে মার্কেট ডাইভার্সিফাইড একটা গুরুত্বপূর্ণ বিষয়। অ্যাডভান্স মেশিনারি ও টেকনোলজি জরুরি যেটি আমাদের উৎপাদন খরচ কমাবে।

বাণিজ্য প্রতিমন্ত্রী আহসানুল ইসলাম টিটু বলেন, বাণিজ্য মন্ত্রণালয় পলিসি সাপোর্ট দিচ্ছে। প্লাস্টিক সেক্টর নতুন রাফতানি খাত হিসেবে অবস্থান করে নেবে আমার বলে প্রত্যাশা।

বিপিজিএমইএর সভাপতি সামিম আহমেদ বলেন, মেলায় দেশীয় ৫৪টি কোম্পানির ১৬১টি স্টল অংশ নিয়েছে। দেশী বিদেশী মিলে মোট স্টল/বুথ ৯৬১টি। সাড়ে ৮শত ভিসা লেটার ইস্যু করা হয়েছে। প্রায় ২০টি দেশ থেকে প্রতিনিধিরা এই ফেয়ারে অংশ নিচ্ছেন । এসব দেশ গুলোর মধ্য রয়েছে—চীন, তাইওয়ান, ভারত, বাংলাদেশ, বেলজিয়াম, ভিয়েতনাম, ইন্দোনেশিয়া , দক্ষিণ কোরিয়া, ইউকে, ইউএসএ, সৌদি আরব, হংকং, ইতালি, জার্মানি, জাপান, মালয়েশিয়া, অস্ট্রিয়া, সিঙ্গাপুর, তুরক্ক, সংযুক্ত আরব আমিরাত উল্লেখযোগ্য।

মেলায় প্লাস্টিক হাউজহোল্ড পণ্য, ক্রোকারিজ, প্যাকেজিং ম্যাটেরিয়াল, খেলনা সামগ্রী, ফার্মাসিউটিক্যাল পণ্য, প্লাস্টিকের ফার্নিচার, মেলামাইন, গার্মেন্টস অ্যাক্সেসরিজ, ওভেন ব্যাগ, ইলেকট্রিক পণ্যসহ ১৫ ধরনের পণ্য স্থান পেয়েছে। একই সঙ্গে বিভিন্ন দেশ থেকে আগত প্রতিষ্ঠানগুলো বিভিন্ন ধরনের প্লাস্টিক পণ্য উৎপাদনকারী মেশিন ও ক্যাটালগ প্রদর্শন করা হচ্ছে।

উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে ছিলেন বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের সিনিয়র সচিব তপন কান্তি ঘোষ, এফবিসিসিআইর সিনিয়র সহসভাপতি মো. আমিন হেলালী, ইয়োর্কার ট্রেড অ্যান্ড মার্কেটিং লিমিটেডের সভাপতি জুডি ওয়াং।

ট্যাগস

আন্তর্জাতিক প্লাস্টিক মেলা শুরু

আপডেট সময় ০৩:২৩ অপরাহ্ন, বুধবার, ২৪ জানুয়ারী ২০২৪

দেশ-বিদেশের ৬৫৪টি প্রতিষ্ঠানের ৯৬১টি স্টল নিয়ে শুরু হয়েছে চার দিনব্যাপী ১৬তম আন্তর্জাতিক প্লাস্টিক মেলা। প্রতিষ্ঠানগুলো বিভিন্ন ধরনের প্লাস্টিক পণ্য ও প্লাস্টিক পণ্য উৎপাদনের প্রয়োজনীয় আধুনিক যন্ত্রপাতি প্রদর্শন করছে।

আজ বুধবার (২৪ জানুয়ারি) রাজধানীর ইন্টারন্যাশনাল কনভেনশন সিটি, বসুন্ধরায় (আইসিসিবি) শিল্পমন্ত্রী নূরুল মজিদ মাহমুদ হুমায়ূন এই প্লাস্টিক মেলা উদ্বোধন করেন।

বাংলাদেশ প্লাস্টিক পণ্য প্রস্তুতকারক ও রপ্তানিকারক সমিতি (বিপিজিএমইএ) এবং ইয়র্কারস ট্রেড অ্যান্ড মার্কেটিং সার্ভিসেস কোম্পানি লিমিটেড যৌথভাবে এ মেলার আয়োজন করেছে।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে শিল্পমন্ত্রী নূরুল মজিদ মাহমুদ হুমায়ূন বলেন, আন্তর্জাতিক এ মেলা আমাদের বড় রকমের দিকনির্দেশনা দেয়। আমাদের অভ্যন্তরীণ মার্কেটও গুরুত্বপূর্ণ মার্কেট। শিল্প মন্ত্রণালয়ের অধীনে প্লাস্টিক শিল্প নগরী হচ্ছে, ক্ষুদ্র শিল্প নগরী হচ্ছে। আমি বিশ্বাস করি এই সরকারের আমলে আপনারা এই সুযোগ সুবিধাগুলো পাবেন।

অনুষ্ঠানে বিশ্ব ব্যাংকের সিনিয়র প্রাইভেট সেক্টর স্পেশালিস্ট এম এস হোসনা ফেরদাউস সুমি বলেন, ১ দশমিক ২ মিলিয়ন কর্মীর কর্মসংস্থানে এ সেক্টর জড়িত। প্রতিযোগিতায় মূলত বৈশ্বিক বাজারের জন্য আমাদের প্রস্তুত থাকা দরকার। বৈশ্বিক বাজারে মার্কেট ডাইভার্সিফাইড একটা গুরুত্বপূর্ণ বিষয়। অ্যাডভান্স মেশিনারি ও টেকনোলজি জরুরি যেটি আমাদের উৎপাদন খরচ কমাবে।

বাণিজ্য প্রতিমন্ত্রী আহসানুল ইসলাম টিটু বলেন, বাণিজ্য মন্ত্রণালয় পলিসি সাপোর্ট দিচ্ছে। প্লাস্টিক সেক্টর নতুন রাফতানি খাত হিসেবে অবস্থান করে নেবে আমার বলে প্রত্যাশা।

বিপিজিএমইএর সভাপতি সামিম আহমেদ বলেন, মেলায় দেশীয় ৫৪টি কোম্পানির ১৬১টি স্টল অংশ নিয়েছে। দেশী বিদেশী মিলে মোট স্টল/বুথ ৯৬১টি। সাড়ে ৮শত ভিসা লেটার ইস্যু করা হয়েছে। প্রায় ২০টি দেশ থেকে প্রতিনিধিরা এই ফেয়ারে অংশ নিচ্ছেন । এসব দেশ গুলোর মধ্য রয়েছে—চীন, তাইওয়ান, ভারত, বাংলাদেশ, বেলজিয়াম, ভিয়েতনাম, ইন্দোনেশিয়া , দক্ষিণ কোরিয়া, ইউকে, ইউএসএ, সৌদি আরব, হংকং, ইতালি, জার্মানি, জাপান, মালয়েশিয়া, অস্ট্রিয়া, সিঙ্গাপুর, তুরক্ক, সংযুক্ত আরব আমিরাত উল্লেখযোগ্য।

মেলায় প্লাস্টিক হাউজহোল্ড পণ্য, ক্রোকারিজ, প্যাকেজিং ম্যাটেরিয়াল, খেলনা সামগ্রী, ফার্মাসিউটিক্যাল পণ্য, প্লাস্টিকের ফার্নিচার, মেলামাইন, গার্মেন্টস অ্যাক্সেসরিজ, ওভেন ব্যাগ, ইলেকট্রিক পণ্যসহ ১৫ ধরনের পণ্য স্থান পেয়েছে। একই সঙ্গে বিভিন্ন দেশ থেকে আগত প্রতিষ্ঠানগুলো বিভিন্ন ধরনের প্লাস্টিক পণ্য উৎপাদনকারী মেশিন ও ক্যাটালগ প্রদর্শন করা হচ্ছে।

উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে ছিলেন বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের সিনিয়র সচিব তপন কান্তি ঘোষ, এফবিসিসিআইর সিনিয়র সহসভাপতি মো. আমিন হেলালী, ইয়োর্কার ট্রেড অ্যান্ড মার্কেটিং লিমিটেডের সভাপতি জুডি ওয়াং।