ঢাকা , বৃহস্পতিবার, ২৫ এপ্রিল ২০২৪, ১২ বৈশাখ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

ওয়ালটনের স্মার্ট অত্যাধুনিক ইলেকট্রনিক্স পণ্যে গ্রাহকের ব্যাপক সাড়া

  • ডেস্ক :
  • আপডেট সময় ০৩:৫৬ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ৩০ জানুয়ারী ২০২৪
  • 49

পূর্বাচলে বঙ্গবন্ধু বাংলাদেশ-চায়না ফ্রেন্ডশিপ এক্সিবিশন সেন্টারে চলছে মাসব্যাপী বাণিজ্য মেলা। মেলায় বরাবরের মতোই দেশীয় ব্র্যান্ড ওয়ালটনের মেগা স্টলে ক্রেতা-দর্শনার্থীদের উপচে পড়া ভিড় লক্ষ্য করা গেছে।

ক্রেতা-দর্শনার্থীদের আগ্রহের কেন্দ্রে রয়েছে ওয়ালটন ব্র্যান্ডের বিশ্বমানের স্মার্ট ইলেকট্রনিক্স পণ্য। মেলায় বিশ্বের সর্বাধুনিক প্রযুক্তি ও ফিচারসমৃদ্ধ স্মার্ট ফ্রিজ, এসি, টিভি, লিফট, ওয়াশিং মেশিন, ল্যাপটপ, কম্পিউটার, ইলেকট্রিক বাইক, হোম ও কিচেন অ্যাপ্লায়েন্সেসসহ অসংখ্য ধরনের ইলেকট্রনিক্স ও ইলেকট্রিক্যাল পণ্যসামগ্রী প্রদর্শন করছে ওয়ালটন।

মেলা ঘুরে দেখা গেছে, বেশিরভাগ ক্রেতা-দর্শনার্থীরা বঙ্গবন্ধু টানেলের আদলে নির্মিত দৃষ্টিনন্দন ওয়ালটনের মেগা স্টলে বেশি সময় কাটাচ্ছেন। তারা ঘুরে ঘুরে ওয়ালটনের সব ধরনের পণ্য দেখছেন। জেনে নিচ্ছেন ওয়ালটন পণ্যের বিস্তারিত। এরপর প্রয়োজন অনুযায়ী তারা পণ্য কিনছেন।

মেলায় আগত দর্শনার্থীরা ওয়ালটন ব্র্যান্ডের স্মার্ট ফ্রিজ, এয়ারকন্ডিশনার, টেলিভিশন, লিফট, ল্যাপটপ এবং এনার্জি সেভিং হোম ও কিবেচন অ্যাপ্লায়েন্সেস দেখে অভিভূত হচ্ছেন। এ দিকে ক্রেতা এবং দর্শনার্থীদের ভালোভাবেই সামলে নিচ্ছেন স্টলে দায়িত্বপ্রাপ্ত অভিজ্ঞ কর্মকর্তারা।

প্রতিষ্ঠানটির চিফ মার্কেটিং অফিসার (সিএমও) দিদারুল আলম খান জানান, কনজ্যুমার গুডসের পাশাপাশি এলজিপি, এলডিপি, নাট, বোল্ট, স্ক্রুসহ ইন্ডাস্ট্রিয়াল সলিউশনস প্রদর্শিত হচ্ছে। সাধারণত পণ্য উৎপাদনের সঙ্গে সম্পর্কযুক্ত ব্যাকওয়ার্ড লিঙ্কেজ সাপোর্ট বা মেশিনারিজ, যন্ত্রাংশ ও অন্যান্য সেবা প্রদানকেই ইন্ডাস্ট্রিয়াল সলিউশনস বোঝানো হয়।

এবারও মেলায় তিনটি স্টলের সমন্বয়ে নির্মিত একটি মেগা স্টলে ওয়ালটনের বিভিন্ন পণ্য জোনভিত্তিক প্রদর্শন করা হয়েছে। এর মধ্যে ওয়ালটন স্মার্ট ফ্রিজ, হোম অ্যাপ্লায়েন্স, ওয়ালটন স্মার্ট টেলিভিশন, এয়ারকন্ডিশন, লিফট বা এলিভেটর, কম্পিউটার, ওয়ালটন মোবাইল, এলইডি লাইট, এক্সেসরিজ এবং ইন্ডাস্ট্রিয়াল সলিউশনস জোন। যে কোনো ক্রেতা-দর্শনার্থী তার প্রয়োজনীয় পণ্য প্যাভিলিয়ন থেকে সহজে খুঁজে নিতে পারবে এবং পরিদর্শন করতে পারছেন।

ওয়ালটন কর্মকর্তারা জানান, এবারের বাণিজ্য মেলায় নতুন নতুন প্রযুক্তি ও ফিচার সমৃদ্ধ অত্যাধুনিক স্মার্ট পণ্য প্রদর্শন করা হচ্ছে। যা দেশি-বিদেশি ক্রেতা-দর্শনার্থীদের আকৃষ্ট করছে। এর মধ্যে অত্যাধুনিক ফিচার সমৃদ্ধ রেফ্রিজারেটরের নতুন সংযোজন রয়েছে। এছাড়া মেলায় প্রর্শিত হচ্ছে নতুন পণ্য ই-বাইক।

মেলায় ওয়ালটন প্যাভিলিয়নের ম্যানেজার সঞ্জীত গুহ জানান, মানুষের জীবন ধারার সঙ্গে তাল মিলিয়ে ওয়ালটনের সব পণ্যে প্রযুক্তি, ডিজাইন ও কালারে আনা হয়েছে নতুনত্ব। পণ্যের ফিচারে আছে অভিনবত্ব। মেলায় নতুন নতুন মডেলের পণ্য প্রদর্শিত হচ্ছে। এছাড়াও আছে আপকামিং পণ্য। এ কারণে দর্শনার্থীদের আগ্রহের কেন্দ্রে রয়েছে ওয়ালটন।

বিশ্বের সর্বাধুনিক প্রযুক্তিতে তৈরি আইওটি বেজড স্মার্ট ফ্রিজ নিয়ে সাজানো হয়েছে ওয়ালটন স্মার্ট ফ্রিজ জোন। এতে বেশ কিছু নতুন ডিজাইন ও আধুনিক প্রযুক্তির বেশ কয়েকটি মডেলের ফ্রিজ রয়েছে। দর্শনার্থীদের কাছে এই জোনটি বেশ আকর্ষণীয়। এই জোনে আধুনিক প্রযুক্তির যে ফ্রিজ রয়েছে তা মোবাইল ফোনে নিয়ন্ত্রণ করা যাবে। প্রদর্শিত হচ্ছে এআইওটি বেইজড জায়ান্টেক সিরিজের স্মার্ট ফ্রিজ। নতুন সিরিজের এই ফ্রিজটির মাধ্যমে হাই-টেক রেফ্রিজারেটর উৎপাদন ও বিপণনের নতুন যুগে প্রবেশ করেছে বাংলাদেশ। নতুন এ সিরিজের মধ্যে রয়েছে ৬১৯ লিটারের জিটি, ৬৪৬ লিটারের জিটি প্রো ও ৬৬০ লিটারের জিটি প্রো ম্যাক্স। গ্রাহক স্মার্টফোনে ওয়ালটন স্মার্ট অ্যাপ্লায়েন্সের মাধ্যমে বিশ্বের যে কোনো প্রান্ত থেকে ফ্রিজটি পরিচালনা করতে পারবেন। ফ্রিজগুলোর বিশেষ ফিচারের মধ্যে রয়েছে আয়োনাইজার, অজোনাইজার ও ইউভি ফিচার সমৃদ্ধ ইন্টেলিজেন্ট জার্ম টার্মিনেটর (আইজিটি), ইলোকট্রনিক কন্ট্রোল ফিচার, ডোর ওপেনিং অ্যালার্ম, চাইল্ড লক, থ্রি লেয়ার ওডোর গার্ড, হিউম্যান ডিটেক্টর, ফিঙ্গার ফ্রিন্ট রেসিস্ট্যান্ট মেটাল ডোর, ইন্টার্নাল অটোমেটিক আইস মেকার, সিরামিক কোডেট প্রিমিয়াম গ্লাস এবং এলিগ্যান্ট কার্ভড ডিজাইন মেটাল ডোর ইত্যাদি।

এয়ারকন্ডিশন জোনে ভিআরএফ সিস্টেমের অত্যাধুনিক প্রযুক্তির এসি প্রদর্শিত হচ্ছে। রয়েছে ভয়েস কন্টোলার এসি। মেলায় প্রদর্শিত হচ্ছে লেটেস্ট প্রযুক্তির ব্যাপক বিদ্যুৎসাশ্রয়ী নতুন মডেলের কোয়াটেক সিরিজের এসি। এই সিরিজের এসির গুরুত্বপূর্ণ বৈশিষ্ট্যের মধ্যে রয়েছে-সাইলেন্ট অপারেশন, ইকো-ফ্রেন্ডলি, ফাস্ট কুলিং, মাল্টিফাংশনাল এয়ার ফ্লো ইত্যাদি।

সংশ্লিষ্টরা জানান, দক্ষিণ এশিয়ার মধ্যে একমাত্র কম্প্রেসর ম্যানুফ্যাকচারার ওয়ালটন। এই পণ্য ছাড়াও এবারের বাণিজ্য মেলায় ওয়ালটনের উৎপাদিত ক্যাবল, সুইচ, সকেট, গ্যাং সুইচ, সার্কিট ব্রেকার, এক্সটেনশন সকেট, ইলেক্ট্রিক্যাল ফিটিংস, এলইডি লাইট, আইওটি কন্টোল লাইট, সিলিং ফ্যান, টেবিল ফ্যান, মুভিং ফ্যান, রিচার্জেবল রিমোট কন্ট্রোল ফ্যান ও ব্যাটারিসহ অত্যাধুনিক পণ্যের প্রদর্শনী রয়েছে এই জোনে।

ওয়ালটন হোম ও কিচেন অ্যাপ্লায়েন্স জোনে প্রদর্শিত হচ্ছে নতুন মডেলের ওয়াশিং মেশিনসহ বিভিন্ন ধরনের হোম ও কিচেন অ্যাপ্লায়েন্স যেমন রাইস কুকার, গ্যাস স্টোভ, গ্যাস হব, চপার, মাইক্রোওয়েভ ওভেন, ব্লেন্ডার, কুওয়্যার, কেতলি, প্রেশার কুকার, মিক্সার গ্রিন্ডার, স্টিম আয়রন ও রুম হিটারের মতো অত্যন্ত প্রয়োজনীয় পণ্য। ওয়ালটন ওয়াশিং মেশিনে কাপড়ের মান ঠিক রাখার জন্য ইন্টেলিজেন্ট ডাইং রয়েছে। একই সঙ্গে কাপড়ের ফেনা না তুলেই তা ওয়াশ করবে। প্রদর্শিত হচ্ছে আপকামিং মডেলের ডুয়েল ওয়াশিং মেশিন, যা কাপড় পরিস্কার ও শুকানো যায়। আছে অত্যাধুনিক প্রযুক্তির ডাবল চেম্বারের ওয়াশিং মেশিন। যার ধারণ ক্ষমতা ১৫ কেজি। এছাড়াও বিদ্যুৎ সাশ্রয়ী উন্নতমানের গিজারসহ নানান পণ্য দিয়ে সাজানো হয়েছে এই জোন। রয়েছে আপকামিং কিছু পণ্য।

এদিকে, অন ইন অল পিসি, প্রিন্টার, ওয়েবক্যাম, নতুন র‌্যাম, সাউন্ড সিস্টেমসহ নতুন নতুন মডেলের কম্পিউটার দিয়ে সাজানো হয়েছে প্যাভিলিয়নের কম্পিউটার জোনটি। যা শিক্ষার্থী, যুবক, তরুণ দর্শনার্থীদের নজর কাড়ছে। এছাড়া গেমিং জোনে রয়েছে অত্যাধুনিক প্রযুক্তির গেমিং ডিভাইস। যেকোনো দর্শনার্থী ওয়ালটনের মেগা স্টলে এসে নিতে পারেন গেমিং এক্সপেরিয়েন্স। যা সম্পূর্ণ ফ্রি।

নেক্সজি, এনইএক্স, অরবিট সিরিজ ছাড়াও আপকামিং মডেলের পণ্য দিয়ে সাজানো রয়েছে ওয়ালটনের মোবাইল জোনে। এছাড়া নতুন নতুন ডিজাইনের মোবাইল, ট্যাবও প্রদর্শন করা হচ্ছে জোনটিতে।

আধুনিক প্রযুক্তির নানা মডেলের স্মার্ট টিভি দিয়ে সাজানো হয়েছে টিভি জোন। রয়েছে নতুন অপারেটিং সিস্টেম, এন্ড্রয়েডের পাশাপাশি ওয়েবওএস অপারেটিং সিস্টেমের নতুন মডেলের টিভি। ভয়েস কন্টোল টিভিতো রয়েছেই। এছাড়া এই জোনে রয়েছে আধুনিক প্রযুক্তির ৬৫ ইঞ্চি স্লিম টিভি। যা দর্শনার্থীদের নিকট খুবই আকর্ষণীয়। এছাড়া মিনি এলইডি টিভি দিয়ে সাজানো হয়েছে জোনটি। এদিকে, স্মার্ট টেলিভিশনের সঙ্গেই ৬৫ ইঞ্চি বিল্ড ইন মিউজিক ইন্টারেক্টিভ ডিসপ্লে স্মার্ট বোর্ড প্রদর্শন করা হয়েছে।

লাইট জোনে প্রদর্শিত হচ্ছে ওয়ালটনের উৎপাদিত স্মার্ট প্যানেল লাইট, স্মার্ট আইওটি লাইট, মুসন সেন্সর লাইট এবং সোলার ওয়াল লাইটসহ নতুন মডেলের পণ্য। পাশাপাশি ওয়ালটন এলিভেটর জোনে রয়েছে অত্যাধুনিক প্রযুক্তির প্যাসেঞ্জার ও কার্গো লিফট। এছাড়া গ্রাহকের চাহিদা অনুযায়ী যেকোনো ধরনের প্যাসেঞ্জার ও ইন্ডাস্ট্রিয়াল লিফট ডিজাইন ও সরবরাহ করার সক্ষমতা রয়েছে।

মেলায় ওয়ালটনের অন্যতম আকর্ষণীয় পণ্য ই-বাইক। একদিকে জ্বালানির সাশ্রয় অপর দিকে পরিবেশের সুরক্ষার মাধ্যমে নিরাপদ যাতায়াত নিশ্চিত করতে ই-বাইকটি অতুলনীয়। যা ইতোমধ্যেই সারা দেশে ব্যাপক গ্রাহকপ্রিয়তা অর্জন করতে সক্ষম হয়েছে। এছাড়াও ই-প্লাজা জোনে কোনো গ্রাহক-দর্শনার্থী ওয়ালটনের যেকোনো পণ্য পছন্দ করলে ই-প্লাজার মাধ্যমে অর্ডার দিতে পারবেন। এছাড়া কোনো পণ্য প্রি-অর্ডারও দিতে পারবেন এই জোন থেকে। কর্তৃপক্ষের প্রত্যাশা অন্যবারের মতো এবারের বাণিজ্য মেলায়ও ওয়ালটন আন্তর্জাতিকমানের পণ্য নিয়ে ব্যাপক গ্রাহকপ্রিয়তা অর্জন করতে সক্ষম হবে।

ট্যাগস

ওয়ালটনের স্মার্ট অত্যাধুনিক ইলেকট্রনিক্স পণ্যে গ্রাহকের ব্যাপক সাড়া

আপডেট সময় ০৩:৫৬ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ৩০ জানুয়ারী ২০২৪

পূর্বাচলে বঙ্গবন্ধু বাংলাদেশ-চায়না ফ্রেন্ডশিপ এক্সিবিশন সেন্টারে চলছে মাসব্যাপী বাণিজ্য মেলা। মেলায় বরাবরের মতোই দেশীয় ব্র্যান্ড ওয়ালটনের মেগা স্টলে ক্রেতা-দর্শনার্থীদের উপচে পড়া ভিড় লক্ষ্য করা গেছে।

ক্রেতা-দর্শনার্থীদের আগ্রহের কেন্দ্রে রয়েছে ওয়ালটন ব্র্যান্ডের বিশ্বমানের স্মার্ট ইলেকট্রনিক্স পণ্য। মেলায় বিশ্বের সর্বাধুনিক প্রযুক্তি ও ফিচারসমৃদ্ধ স্মার্ট ফ্রিজ, এসি, টিভি, লিফট, ওয়াশিং মেশিন, ল্যাপটপ, কম্পিউটার, ইলেকট্রিক বাইক, হোম ও কিচেন অ্যাপ্লায়েন্সেসসহ অসংখ্য ধরনের ইলেকট্রনিক্স ও ইলেকট্রিক্যাল পণ্যসামগ্রী প্রদর্শন করছে ওয়ালটন।

মেলা ঘুরে দেখা গেছে, বেশিরভাগ ক্রেতা-দর্শনার্থীরা বঙ্গবন্ধু টানেলের আদলে নির্মিত দৃষ্টিনন্দন ওয়ালটনের মেগা স্টলে বেশি সময় কাটাচ্ছেন। তারা ঘুরে ঘুরে ওয়ালটনের সব ধরনের পণ্য দেখছেন। জেনে নিচ্ছেন ওয়ালটন পণ্যের বিস্তারিত। এরপর প্রয়োজন অনুযায়ী তারা পণ্য কিনছেন।

মেলায় আগত দর্শনার্থীরা ওয়ালটন ব্র্যান্ডের স্মার্ট ফ্রিজ, এয়ারকন্ডিশনার, টেলিভিশন, লিফট, ল্যাপটপ এবং এনার্জি সেভিং হোম ও কিবেচন অ্যাপ্লায়েন্সেস দেখে অভিভূত হচ্ছেন। এ দিকে ক্রেতা এবং দর্শনার্থীদের ভালোভাবেই সামলে নিচ্ছেন স্টলে দায়িত্বপ্রাপ্ত অভিজ্ঞ কর্মকর্তারা।

প্রতিষ্ঠানটির চিফ মার্কেটিং অফিসার (সিএমও) দিদারুল আলম খান জানান, কনজ্যুমার গুডসের পাশাপাশি এলজিপি, এলডিপি, নাট, বোল্ট, স্ক্রুসহ ইন্ডাস্ট্রিয়াল সলিউশনস প্রদর্শিত হচ্ছে। সাধারণত পণ্য উৎপাদনের সঙ্গে সম্পর্কযুক্ত ব্যাকওয়ার্ড লিঙ্কেজ সাপোর্ট বা মেশিনারিজ, যন্ত্রাংশ ও অন্যান্য সেবা প্রদানকেই ইন্ডাস্ট্রিয়াল সলিউশনস বোঝানো হয়।

এবারও মেলায় তিনটি স্টলের সমন্বয়ে নির্মিত একটি মেগা স্টলে ওয়ালটনের বিভিন্ন পণ্য জোনভিত্তিক প্রদর্শন করা হয়েছে। এর মধ্যে ওয়ালটন স্মার্ট ফ্রিজ, হোম অ্যাপ্লায়েন্স, ওয়ালটন স্মার্ট টেলিভিশন, এয়ারকন্ডিশন, লিফট বা এলিভেটর, কম্পিউটার, ওয়ালটন মোবাইল, এলইডি লাইট, এক্সেসরিজ এবং ইন্ডাস্ট্রিয়াল সলিউশনস জোন। যে কোনো ক্রেতা-দর্শনার্থী তার প্রয়োজনীয় পণ্য প্যাভিলিয়ন থেকে সহজে খুঁজে নিতে পারবে এবং পরিদর্শন করতে পারছেন।

ওয়ালটন কর্মকর্তারা জানান, এবারের বাণিজ্য মেলায় নতুন নতুন প্রযুক্তি ও ফিচার সমৃদ্ধ অত্যাধুনিক স্মার্ট পণ্য প্রদর্শন করা হচ্ছে। যা দেশি-বিদেশি ক্রেতা-দর্শনার্থীদের আকৃষ্ট করছে। এর মধ্যে অত্যাধুনিক ফিচার সমৃদ্ধ রেফ্রিজারেটরের নতুন সংযোজন রয়েছে। এছাড়া মেলায় প্রর্শিত হচ্ছে নতুন পণ্য ই-বাইক।

মেলায় ওয়ালটন প্যাভিলিয়নের ম্যানেজার সঞ্জীত গুহ জানান, মানুষের জীবন ধারার সঙ্গে তাল মিলিয়ে ওয়ালটনের সব পণ্যে প্রযুক্তি, ডিজাইন ও কালারে আনা হয়েছে নতুনত্ব। পণ্যের ফিচারে আছে অভিনবত্ব। মেলায় নতুন নতুন মডেলের পণ্য প্রদর্শিত হচ্ছে। এছাড়াও আছে আপকামিং পণ্য। এ কারণে দর্শনার্থীদের আগ্রহের কেন্দ্রে রয়েছে ওয়ালটন।

বিশ্বের সর্বাধুনিক প্রযুক্তিতে তৈরি আইওটি বেজড স্মার্ট ফ্রিজ নিয়ে সাজানো হয়েছে ওয়ালটন স্মার্ট ফ্রিজ জোন। এতে বেশ কিছু নতুন ডিজাইন ও আধুনিক প্রযুক্তির বেশ কয়েকটি মডেলের ফ্রিজ রয়েছে। দর্শনার্থীদের কাছে এই জোনটি বেশ আকর্ষণীয়। এই জোনে আধুনিক প্রযুক্তির যে ফ্রিজ রয়েছে তা মোবাইল ফোনে নিয়ন্ত্রণ করা যাবে। প্রদর্শিত হচ্ছে এআইওটি বেইজড জায়ান্টেক সিরিজের স্মার্ট ফ্রিজ। নতুন সিরিজের এই ফ্রিজটির মাধ্যমে হাই-টেক রেফ্রিজারেটর উৎপাদন ও বিপণনের নতুন যুগে প্রবেশ করেছে বাংলাদেশ। নতুন এ সিরিজের মধ্যে রয়েছে ৬১৯ লিটারের জিটি, ৬৪৬ লিটারের জিটি প্রো ও ৬৬০ লিটারের জিটি প্রো ম্যাক্স। গ্রাহক স্মার্টফোনে ওয়ালটন স্মার্ট অ্যাপ্লায়েন্সের মাধ্যমে বিশ্বের যে কোনো প্রান্ত থেকে ফ্রিজটি পরিচালনা করতে পারবেন। ফ্রিজগুলোর বিশেষ ফিচারের মধ্যে রয়েছে আয়োনাইজার, অজোনাইজার ও ইউভি ফিচার সমৃদ্ধ ইন্টেলিজেন্ট জার্ম টার্মিনেটর (আইজিটি), ইলোকট্রনিক কন্ট্রোল ফিচার, ডোর ওপেনিং অ্যালার্ম, চাইল্ড লক, থ্রি লেয়ার ওডোর গার্ড, হিউম্যান ডিটেক্টর, ফিঙ্গার ফ্রিন্ট রেসিস্ট্যান্ট মেটাল ডোর, ইন্টার্নাল অটোমেটিক আইস মেকার, সিরামিক কোডেট প্রিমিয়াম গ্লাস এবং এলিগ্যান্ট কার্ভড ডিজাইন মেটাল ডোর ইত্যাদি।

এয়ারকন্ডিশন জোনে ভিআরএফ সিস্টেমের অত্যাধুনিক প্রযুক্তির এসি প্রদর্শিত হচ্ছে। রয়েছে ভয়েস কন্টোলার এসি। মেলায় প্রদর্শিত হচ্ছে লেটেস্ট প্রযুক্তির ব্যাপক বিদ্যুৎসাশ্রয়ী নতুন মডেলের কোয়াটেক সিরিজের এসি। এই সিরিজের এসির গুরুত্বপূর্ণ বৈশিষ্ট্যের মধ্যে রয়েছে-সাইলেন্ট অপারেশন, ইকো-ফ্রেন্ডলি, ফাস্ট কুলিং, মাল্টিফাংশনাল এয়ার ফ্লো ইত্যাদি।

সংশ্লিষ্টরা জানান, দক্ষিণ এশিয়ার মধ্যে একমাত্র কম্প্রেসর ম্যানুফ্যাকচারার ওয়ালটন। এই পণ্য ছাড়াও এবারের বাণিজ্য মেলায় ওয়ালটনের উৎপাদিত ক্যাবল, সুইচ, সকেট, গ্যাং সুইচ, সার্কিট ব্রেকার, এক্সটেনশন সকেট, ইলেক্ট্রিক্যাল ফিটিংস, এলইডি লাইট, আইওটি কন্টোল লাইট, সিলিং ফ্যান, টেবিল ফ্যান, মুভিং ফ্যান, রিচার্জেবল রিমোট কন্ট্রোল ফ্যান ও ব্যাটারিসহ অত্যাধুনিক পণ্যের প্রদর্শনী রয়েছে এই জোনে।

ওয়ালটন হোম ও কিচেন অ্যাপ্লায়েন্স জোনে প্রদর্শিত হচ্ছে নতুন মডেলের ওয়াশিং মেশিনসহ বিভিন্ন ধরনের হোম ও কিচেন অ্যাপ্লায়েন্স যেমন রাইস কুকার, গ্যাস স্টোভ, গ্যাস হব, চপার, মাইক্রোওয়েভ ওভেন, ব্লেন্ডার, কুওয়্যার, কেতলি, প্রেশার কুকার, মিক্সার গ্রিন্ডার, স্টিম আয়রন ও রুম হিটারের মতো অত্যন্ত প্রয়োজনীয় পণ্য। ওয়ালটন ওয়াশিং মেশিনে কাপড়ের মান ঠিক রাখার জন্য ইন্টেলিজেন্ট ডাইং রয়েছে। একই সঙ্গে কাপড়ের ফেনা না তুলেই তা ওয়াশ করবে। প্রদর্শিত হচ্ছে আপকামিং মডেলের ডুয়েল ওয়াশিং মেশিন, যা কাপড় পরিস্কার ও শুকানো যায়। আছে অত্যাধুনিক প্রযুক্তির ডাবল চেম্বারের ওয়াশিং মেশিন। যার ধারণ ক্ষমতা ১৫ কেজি। এছাড়াও বিদ্যুৎ সাশ্রয়ী উন্নতমানের গিজারসহ নানান পণ্য দিয়ে সাজানো হয়েছে এই জোন। রয়েছে আপকামিং কিছু পণ্য।

এদিকে, অন ইন অল পিসি, প্রিন্টার, ওয়েবক্যাম, নতুন র‌্যাম, সাউন্ড সিস্টেমসহ নতুন নতুন মডেলের কম্পিউটার দিয়ে সাজানো হয়েছে প্যাভিলিয়নের কম্পিউটার জোনটি। যা শিক্ষার্থী, যুবক, তরুণ দর্শনার্থীদের নজর কাড়ছে। এছাড়া গেমিং জোনে রয়েছে অত্যাধুনিক প্রযুক্তির গেমিং ডিভাইস। যেকোনো দর্শনার্থী ওয়ালটনের মেগা স্টলে এসে নিতে পারেন গেমিং এক্সপেরিয়েন্স। যা সম্পূর্ণ ফ্রি।

নেক্সজি, এনইএক্স, অরবিট সিরিজ ছাড়াও আপকামিং মডেলের পণ্য দিয়ে সাজানো রয়েছে ওয়ালটনের মোবাইল জোনে। এছাড়া নতুন নতুন ডিজাইনের মোবাইল, ট্যাবও প্রদর্শন করা হচ্ছে জোনটিতে।

আধুনিক প্রযুক্তির নানা মডেলের স্মার্ট টিভি দিয়ে সাজানো হয়েছে টিভি জোন। রয়েছে নতুন অপারেটিং সিস্টেম, এন্ড্রয়েডের পাশাপাশি ওয়েবওএস অপারেটিং সিস্টেমের নতুন মডেলের টিভি। ভয়েস কন্টোল টিভিতো রয়েছেই। এছাড়া এই জোনে রয়েছে আধুনিক প্রযুক্তির ৬৫ ইঞ্চি স্লিম টিভি। যা দর্শনার্থীদের নিকট খুবই আকর্ষণীয়। এছাড়া মিনি এলইডি টিভি দিয়ে সাজানো হয়েছে জোনটি। এদিকে, স্মার্ট টেলিভিশনের সঙ্গেই ৬৫ ইঞ্চি বিল্ড ইন মিউজিক ইন্টারেক্টিভ ডিসপ্লে স্মার্ট বোর্ড প্রদর্শন করা হয়েছে।

লাইট জোনে প্রদর্শিত হচ্ছে ওয়ালটনের উৎপাদিত স্মার্ট প্যানেল লাইট, স্মার্ট আইওটি লাইট, মুসন সেন্সর লাইট এবং সোলার ওয়াল লাইটসহ নতুন মডেলের পণ্য। পাশাপাশি ওয়ালটন এলিভেটর জোনে রয়েছে অত্যাধুনিক প্রযুক্তির প্যাসেঞ্জার ও কার্গো লিফট। এছাড়া গ্রাহকের চাহিদা অনুযায়ী যেকোনো ধরনের প্যাসেঞ্জার ও ইন্ডাস্ট্রিয়াল লিফট ডিজাইন ও সরবরাহ করার সক্ষমতা রয়েছে।

মেলায় ওয়ালটনের অন্যতম আকর্ষণীয় পণ্য ই-বাইক। একদিকে জ্বালানির সাশ্রয় অপর দিকে পরিবেশের সুরক্ষার মাধ্যমে নিরাপদ যাতায়াত নিশ্চিত করতে ই-বাইকটি অতুলনীয়। যা ইতোমধ্যেই সারা দেশে ব্যাপক গ্রাহকপ্রিয়তা অর্জন করতে সক্ষম হয়েছে। এছাড়াও ই-প্লাজা জোনে কোনো গ্রাহক-দর্শনার্থী ওয়ালটনের যেকোনো পণ্য পছন্দ করলে ই-প্লাজার মাধ্যমে অর্ডার দিতে পারবেন। এছাড়া কোনো পণ্য প্রি-অর্ডারও দিতে পারবেন এই জোন থেকে। কর্তৃপক্ষের প্রত্যাশা অন্যবারের মতো এবারের বাণিজ্য মেলায়ও ওয়ালটন আন্তর্জাতিকমানের পণ্য নিয়ে ব্যাপক গ্রাহকপ্রিয়তা অর্জন করতে সক্ষম হবে।