ঢাকা , রবিবার, ২৩ জুন ২০২৪, ৯ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

লালমনিরহাটে স্বেচ্ছাসেবক দলের নেতার মরদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ

  • ডেস্ক :
  • আপডেট সময় ১২:১৪ অপরাহ্ন, সোমবার, ১১ মার্চ ২০২৪
  • 56

লালমনিরহাটে স্বেচ্ছাসেবক দলের ইউনিয়ন সভাপতি ফেরদৌস আহমেদের (৪৮) মরদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ। সোমবার (১১ মার্চ) সকালে লালমনিরহাট সদর উপজেলার মহেন্দ্রনগর ইউনিয়নের নিজপাড়া এলাকা থেকে তার মরদেহ উদ্ধার করা হয়।

ফেরদৌস আহমেদ সদর উপজেলার খুনিয়াগাছ ইউনিয়নের কালমাটি আনন্দবাজার এলাকার নুরল হকের ছেলে। তিনি ওই ইউনিয়ন স্বেচ্ছাসেবক দলের সভাপতি।

পুলিশ ও স্থানীয়রা জানান, রোববার বিকেলে সদর উপজেলার বড়বাড়ি ইউরিয়নে বিএনপির কোন সভায় যোগদানের কথা বলে বাড়ি থেকে বের হন ফেরদৌস আহমেদ। রাতে বাড়ি না ফেরায় যোগাযোগ করে ফোন বন্ধ পায় তার পরিবার। অবশেষে লালমনিরহাট শহরে খুঁজতে এসে শহরের প্রাণ কেন্দ্র মিশন মোড়ে তার ব্যবহৃত মোটর সাইকেলটি পাওয়া গেলেও তার সন্ধান মিলেনি।

সোমবার (১১ মার্চ) সকালে সদর উপজেলার মহেন্দ্রনগর ইউনিয়নের নিজপাড়া এলাকায় রাস্তার পাশে স্বেচ্ছাসেবক দলের নেতা ফেরদৌসের মরদেহ পড়ে থাকতে দেখে পুলিশে খবর দেন। সদর থানা পুলিশ মরদেহ উদ্ধার করে সদর হাসপাতাল মর্গে পাঠায়। ঘাতকরা তাকে শহর থেকে নিয়ে এসে নিজপাড়া গ্রামে নির্জন এলাকায় শ্বাসরোধে হত্যা করে সড়কের পাশে ফেলে পালিয়ে যায় বলে ধারণা করছেন স্থানীয়রা।

লালমনিরহাট সদর থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) ওমর ফারুক বলেন, নিহতের পরিবারের দেওয়া তথ্যমতে ফেরদৌস বেশ কিছু টাকা নিয়ে বিএনপির সভায় যোগদানের কথা বলে বেড়িয়ে এলেও বাড়ি ফিরেনি। এখন পর্যন্ত কোনো অভিযোগ দেয়নি তার পরিবার। আমরা পুরো ঘটনা তদন্ত করছি।

ট্যাগস

লালমনিরহাটে স্বেচ্ছাসেবক দলের নেতার মরদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ

আপডেট সময় ১২:১৪ অপরাহ্ন, সোমবার, ১১ মার্চ ২০২৪

লালমনিরহাটে স্বেচ্ছাসেবক দলের ইউনিয়ন সভাপতি ফেরদৌস আহমেদের (৪৮) মরদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ। সোমবার (১১ মার্চ) সকালে লালমনিরহাট সদর উপজেলার মহেন্দ্রনগর ইউনিয়নের নিজপাড়া এলাকা থেকে তার মরদেহ উদ্ধার করা হয়।

ফেরদৌস আহমেদ সদর উপজেলার খুনিয়াগাছ ইউনিয়নের কালমাটি আনন্দবাজার এলাকার নুরল হকের ছেলে। তিনি ওই ইউনিয়ন স্বেচ্ছাসেবক দলের সভাপতি।

পুলিশ ও স্থানীয়রা জানান, রোববার বিকেলে সদর উপজেলার বড়বাড়ি ইউরিয়নে বিএনপির কোন সভায় যোগদানের কথা বলে বাড়ি থেকে বের হন ফেরদৌস আহমেদ। রাতে বাড়ি না ফেরায় যোগাযোগ করে ফোন বন্ধ পায় তার পরিবার। অবশেষে লালমনিরহাট শহরে খুঁজতে এসে শহরের প্রাণ কেন্দ্র মিশন মোড়ে তার ব্যবহৃত মোটর সাইকেলটি পাওয়া গেলেও তার সন্ধান মিলেনি।

সোমবার (১১ মার্চ) সকালে সদর উপজেলার মহেন্দ্রনগর ইউনিয়নের নিজপাড়া এলাকায় রাস্তার পাশে স্বেচ্ছাসেবক দলের নেতা ফেরদৌসের মরদেহ পড়ে থাকতে দেখে পুলিশে খবর দেন। সদর থানা পুলিশ মরদেহ উদ্ধার করে সদর হাসপাতাল মর্গে পাঠায়। ঘাতকরা তাকে শহর থেকে নিয়ে এসে নিজপাড়া গ্রামে নির্জন এলাকায় শ্বাসরোধে হত্যা করে সড়কের পাশে ফেলে পালিয়ে যায় বলে ধারণা করছেন স্থানীয়রা।

লালমনিরহাট সদর থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) ওমর ফারুক বলেন, নিহতের পরিবারের দেওয়া তথ্যমতে ফেরদৌস বেশ কিছু টাকা নিয়ে বিএনপির সভায় যোগদানের কথা বলে বেড়িয়ে এলেও বাড়ি ফিরেনি। এখন পর্যন্ত কোনো অভিযোগ দেয়নি তার পরিবার। আমরা পুরো ঘটনা তদন্ত করছি।