ঢাকা , বৃহস্পতিবার, ২৫ এপ্রিল ২০২৪, ১২ বৈশাখ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

সীমান্তে বিএসএফের গুলিতে বাংলাদেশি নিহত

  • ডেস্ক :
  • আপডেট সময় ১২:১৭ অপরাহ্ন, শনিবার, ৩০ মার্চ ২০২৪
  • 18

লালমনিরহাটের কালীগঞ্জ উপজেলার চন্দ্রপুর ইউনিয়নের বেলতলা সীমান্তে ভারতীয় সীমান্তরক্ষী বাহিনীর (বিএসএফ) গুলিতে মুরলি চন্দ্র বর্মণ নামে এক বাংলাদেশি নিহত হয়েছেন। এ সময় গুলিবিদ্ধ হয়েছেন আরও দুজন। আজ শনিবার (৩০ মার্চ) ভোরে এ ঘটনা ঘটে ।

নিহত মুরলি চন্দ্র বর্মণ রায়চন্দ্রপুর ইউনিয়নের উত্তর বালাপাড়া গ্রামের সুশীল চন্দ্রের ছেলে। এ নিয়ে গত চার দিনের ব্যবধানে লালমনিরহাট সীমান্তে দ্বিতীয়বার বাংলাদেশিকে গুলি করে হত্যা করল বিএসএফ।

বিজিবি, পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, শুক্রবার রাতে মুরলি চন্দ্রসহ প্রায় ২০ জনের একটি দল ভারতীয় গরু আনতে সীমান্তে যায়। ভোরের দিকে গরু নিয়ে ফেরার সময় বিএসএফের একটি টহল দল তাদের লক্ষ্য করে গুলি ছুড়লে মুরলিসহ মিজানুর ও লিটন মিয়া নামে অপর দুই বাংলাদেশি গুলিবিদ্ধ হন। পরে তাদের সহযোগীরা আহতদের উদ্ধার করে। এর মধ্যে মুরলি চন্দ্র বর্মণের মৃত্যু হয়। গুলিবিদ্ধ অপর দুই বাংলাদেশি চিকিৎসাধীন রয়েছেন। তাদের বাড়ি চন্দ্রপুর গ্রামে।

কালীগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) ইমতিয়াজ কবির বলেন, ‘খবর পেয়ে সকালে সীমান্তে নিহত মুরলি চন্দ্রের মরদেহ ময়নাতদন্তের জন্য থানায় নিয়ে আসা হয়েছে।’

এ ঘটনার প্রতিবাদ জানানোর পাশাপাশি বিএসএফেকে পতাকা বৈঠকের আহ্বান জানানো হয়েছে বলে জানিয়েছেন লালমনিরহাট ১৫ বিজিবি ব্যাটালিয়নের অধিনায়ক লে. কর্নেল মোফাজ্জল হোসেন আকন্দ।

ট্যাগস

সীমান্তে বিএসএফের গুলিতে বাংলাদেশি নিহত

আপডেট সময় ১২:১৭ অপরাহ্ন, শনিবার, ৩০ মার্চ ২০২৪

লালমনিরহাটের কালীগঞ্জ উপজেলার চন্দ্রপুর ইউনিয়নের বেলতলা সীমান্তে ভারতীয় সীমান্তরক্ষী বাহিনীর (বিএসএফ) গুলিতে মুরলি চন্দ্র বর্মণ নামে এক বাংলাদেশি নিহত হয়েছেন। এ সময় গুলিবিদ্ধ হয়েছেন আরও দুজন। আজ শনিবার (৩০ মার্চ) ভোরে এ ঘটনা ঘটে ।

নিহত মুরলি চন্দ্র বর্মণ রায়চন্দ্রপুর ইউনিয়নের উত্তর বালাপাড়া গ্রামের সুশীল চন্দ্রের ছেলে। এ নিয়ে গত চার দিনের ব্যবধানে লালমনিরহাট সীমান্তে দ্বিতীয়বার বাংলাদেশিকে গুলি করে হত্যা করল বিএসএফ।

বিজিবি, পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, শুক্রবার রাতে মুরলি চন্দ্রসহ প্রায় ২০ জনের একটি দল ভারতীয় গরু আনতে সীমান্তে যায়। ভোরের দিকে গরু নিয়ে ফেরার সময় বিএসএফের একটি টহল দল তাদের লক্ষ্য করে গুলি ছুড়লে মুরলিসহ মিজানুর ও লিটন মিয়া নামে অপর দুই বাংলাদেশি গুলিবিদ্ধ হন। পরে তাদের সহযোগীরা আহতদের উদ্ধার করে। এর মধ্যে মুরলি চন্দ্র বর্মণের মৃত্যু হয়। গুলিবিদ্ধ অপর দুই বাংলাদেশি চিকিৎসাধীন রয়েছেন। তাদের বাড়ি চন্দ্রপুর গ্রামে।

কালীগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) ইমতিয়াজ কবির বলেন, ‘খবর পেয়ে সকালে সীমান্তে নিহত মুরলি চন্দ্রের মরদেহ ময়নাতদন্তের জন্য থানায় নিয়ে আসা হয়েছে।’

এ ঘটনার প্রতিবাদ জানানোর পাশাপাশি বিএসএফেকে পতাকা বৈঠকের আহ্বান জানানো হয়েছে বলে জানিয়েছেন লালমনিরহাট ১৫ বিজিবি ব্যাটালিয়নের অধিনায়ক লে. কর্নেল মোফাজ্জল হোসেন আকন্দ।