ঢাকা , শুক্রবার, ২১ জুন ২০২৪, ৭ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

শাবনূর আপু একজনই, তার মতো কেউ হতে পারবে না: পূজা চেরি

  • ডেস্ক :
  • আপডেট সময় ০২:৩৫ অপরাহ্ন, শনিবার, ২৭ এপ্রিল ২০২৪
  • 40

সম্প্রতি মুক্তি পেয়েছে পূজা চেরির ‘লিপস্টিক’ সিনেমা। এ সিনেমায় নায়কের ভূমিকায় অভিনয় করেছেন আদর আজাদ। ‘লিপস্টিক’ মুক্তির প্রথম দিন থেকেই হলে দর্শক টানতে বগুড়ার এক সিনেমা হল মালিক টিকিটের সঙ্গে বিরিয়ানির প্যাকেট দর্শকদের হাতে তুলে দেন। ঘটনাটি প্রকাশ হলে দেশের অধিকাংশ মিডিয়াই ঢালাও নিউজ কভার করে। এর ফলে বগুড়ার ওই সিনেমা হল এবং লিপস্টিক সিনেমা ভাইরাল হয়।

এদিকে, গত কয়েকদিন ধরেই ‘লিপস্টিক’ সিনেমার টিম প্রমোশনের জন্য বিভিন্ন জেলার সিনেমা হল, সিনেপ্লেক্স ঘুরে বেড়াচ্ছেন। দর্শকদের সঙ্গে করছেন কুশল বিনিময়। দর্শকরাও হুমড়ি খেয়ে পড়ছেন পূজা চেরি- আদর আজাদের সঙ্গে সেলফি তুলতে।

গতকাল শুক্রবার (২৬ এপ্রিল) লিপস্টিকের নায়ক-নায়িকাসহ কয়েকজনের একটি টিম বগুড়ায় এসেছিলেন। তারা প্রথমে যান বগুড়া ধুনটের সেই ঝংকার সিনেমা হলে। যেখানে টিকিটের সঙ্গে দর্শকদের বিরিয়ানির প্যাকেট দেয়া হচ্ছে। পরে যান বগুড়ার মধুবন সিনেপ্লেক্সে। যেখানে শুক্রবার থেকেই স্ক্রিনিং শুরু হয়েছে। সিনেমার একদম শেষ মুর্হর্তে অন্ধকারে সিনেপ্লেক্সে প্রবেশ করেন পূজা-আদরসহ তাদের টিম। দর্শকরা সিনেমা শেষে বের হওয়ার সময় সিনেমার নায়ক-নায়িকাকে দেখে তাজ্জব বনে যান। তারা পূজা-আদরকে নিজেদের সঙ্গে ক্যামেরাবন্দি করতে ব্যস্ত হয়ে পড়েন।

এ সময় পূজা দর্শকদের উদ্দেশ্যে বলেন, ‘আমরা ঢাকা থেকে এতদূর এখানে এসেছি শুধুমাত্র আপনাদের সঙ্গে যেন কথা বলতে পারি, একসঙ্গে বসে যেন সিনেমা দেখতে পারি এজন্য। ঢাকায় তো সব সময় আমরা দেখতেই পারি, আপনাদের সঙ্গে সেই সুযোগ হয়ে ওঠে না। আজকে আমার ঢাকায় একটা জরুরি কাজ ছিল, এরপরেও আপনাদের সঙ্গে হলে বসে সিনেমা দেখার সুযোগটা মিস করতে চাচ্ছিলাম না। আপনারা হলে এসে সিনেমা দেখছেন, আপনাদের প্রতি অনেক কৃতজ্ঞ। আপনারা বাংলা সিনেমার সঙ্গে থাকবেন যাতে আপনাদের আরো ভালো ভালো সিনেমা উপহার দিতে পারি।’

দর্শকদের সামলানোর পর সাংবাদিকদের সাথে কথা বলেন লিপস্টিক টিম। সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে পূজা চেরি বলেন, ‘আমাদের কন্টেন্টের জোর আছে, স্টোরিতে জোর আছে, আমরা সবাই আসলে কনফিডেন্ট, যেকারণে আমাদের এক্সপেক্টেশন অনেক হাই- লিপস্টিক সিনেমা নিয়ে।’

লিপস্টিক দেখতে দর্শকরা কেন হলে আসবে জানতে চাইলে পূজা চেরি বলেন, ‘আমরা আসলে দিনশেষে ভালো গল্প দেখতে চাই। ভালো নির্মাণ দেখতে চাই। সব মিলিয়ে আসলে ফুল প্যাকেজিংই ভালো দেখতে চাই। প্যাকেজিং যদি ভালো দেখতে পারি, তার মধ্যে যদি প্রোডাক্টটা ভালো হয় তাহলে আসলে আগ্রহ নিয়ে দেখে। লিপস্টিক সিনেমাটি খুব যত্ন সহকারে করা। খুব ভালোও হয়েছে। এজন্য আসলে দর্শক দেখতে যাবে।’

দর্শকদের খুব ভালো সাড়া পাচ্ছি জানিয়ে পূজা চেরি বলেন, ‘আমি তো বেশ কিছু সিনেমা করেছি। এর মধ্যে অধিকাংশ সিনেমার দর্শকই প্রশংসা করেছে। তবে কিছু কিছু দর্শক একটু নেগেটিভ কথাও বলেছে। তবে লিপস্টিকের ক্ষেত্রে আমি বলতে পারি, এখনও পর্যন্ত কোনো নেগেটিভ ভাইভও পাইনি, নেগেটিভ ফিডব্যাকও পাইনি। এই ব্যাপারটা আসলে আমাদের সবার জন্য খুবই ভালো। এখন পর্যন্ত যে যে সিনেমা হলে গিয়েছি, সবগুলো সিনেমা হলের দর্শকই খুব পজিটিভ। আমরা সিনেমার শেষে হলগুলোতে গিয়েছি দর্শকদের কেমন লেগেছে, এটা জানার জন্য। তারা সবাই খুব এক্সাইটেড ছিল।’

শাবনূরের সঙ্গে তুলনা প্রসঙ্গে পূজা চেরি বলেন, ‘কিংবদন্তি কোনো আর্টিস্টের সঙ্গে যখন তুলনা দেন, তখন অবশ্যই ভালো লাগে। তবে আমরা যারা নতুন এসেছি এবং কাজ করছি, তারা আসলে নিজের পরিচয়ে নিজেদের পরিচিত করতে চাই। আমিও চাই সবাই যেন আমাকে আমার নামে চেনে। আর শাবনূর আপুর নাম তো ভালোলাগার নাম। ভালোবাসার নাম। তার ভক্ত সবাই আছে। আমি নিজেও ব্যক্তিগতভাবে তার অনেক বড় ভক্ত। তিনি ব্যক্তি হিসেবে অনেক ভালো একজন মানুষ। তাই তার সঙ্গে আসলে তুলনা করবেন না। কারণ শাবনূর আপু একজনই। তার মতো কেউ হতেও পারবে না, তার মতো হওয়ার চেষ্টা করতে গেলেও আসলে ফেইল হবে। তাই আমি চেষ্টা করতে চাই। আমি আমার মতো নিজের পরিচয়ে বড় হতে চাই।’

ট্যাগস

শাবনূর আপু একজনই, তার মতো কেউ হতে পারবে না: পূজা চেরি

আপডেট সময় ০২:৩৫ অপরাহ্ন, শনিবার, ২৭ এপ্রিল ২০২৪

সম্প্রতি মুক্তি পেয়েছে পূজা চেরির ‘লিপস্টিক’ সিনেমা। এ সিনেমায় নায়কের ভূমিকায় অভিনয় করেছেন আদর আজাদ। ‘লিপস্টিক’ মুক্তির প্রথম দিন থেকেই হলে দর্শক টানতে বগুড়ার এক সিনেমা হল মালিক টিকিটের সঙ্গে বিরিয়ানির প্যাকেট দর্শকদের হাতে তুলে দেন। ঘটনাটি প্রকাশ হলে দেশের অধিকাংশ মিডিয়াই ঢালাও নিউজ কভার করে। এর ফলে বগুড়ার ওই সিনেমা হল এবং লিপস্টিক সিনেমা ভাইরাল হয়।

এদিকে, গত কয়েকদিন ধরেই ‘লিপস্টিক’ সিনেমার টিম প্রমোশনের জন্য বিভিন্ন জেলার সিনেমা হল, সিনেপ্লেক্স ঘুরে বেড়াচ্ছেন। দর্শকদের সঙ্গে করছেন কুশল বিনিময়। দর্শকরাও হুমড়ি খেয়ে পড়ছেন পূজা চেরি- আদর আজাদের সঙ্গে সেলফি তুলতে।

গতকাল শুক্রবার (২৬ এপ্রিল) লিপস্টিকের নায়ক-নায়িকাসহ কয়েকজনের একটি টিম বগুড়ায় এসেছিলেন। তারা প্রথমে যান বগুড়া ধুনটের সেই ঝংকার সিনেমা হলে। যেখানে টিকিটের সঙ্গে দর্শকদের বিরিয়ানির প্যাকেট দেয়া হচ্ছে। পরে যান বগুড়ার মধুবন সিনেপ্লেক্সে। যেখানে শুক্রবার থেকেই স্ক্রিনিং শুরু হয়েছে। সিনেমার একদম শেষ মুর্হর্তে অন্ধকারে সিনেপ্লেক্সে প্রবেশ করেন পূজা-আদরসহ তাদের টিম। দর্শকরা সিনেমা শেষে বের হওয়ার সময় সিনেমার নায়ক-নায়িকাকে দেখে তাজ্জব বনে যান। তারা পূজা-আদরকে নিজেদের সঙ্গে ক্যামেরাবন্দি করতে ব্যস্ত হয়ে পড়েন।

এ সময় পূজা দর্শকদের উদ্দেশ্যে বলেন, ‘আমরা ঢাকা থেকে এতদূর এখানে এসেছি শুধুমাত্র আপনাদের সঙ্গে যেন কথা বলতে পারি, একসঙ্গে বসে যেন সিনেমা দেখতে পারি এজন্য। ঢাকায় তো সব সময় আমরা দেখতেই পারি, আপনাদের সঙ্গে সেই সুযোগ হয়ে ওঠে না। আজকে আমার ঢাকায় একটা জরুরি কাজ ছিল, এরপরেও আপনাদের সঙ্গে হলে বসে সিনেমা দেখার সুযোগটা মিস করতে চাচ্ছিলাম না। আপনারা হলে এসে সিনেমা দেখছেন, আপনাদের প্রতি অনেক কৃতজ্ঞ। আপনারা বাংলা সিনেমার সঙ্গে থাকবেন যাতে আপনাদের আরো ভালো ভালো সিনেমা উপহার দিতে পারি।’

দর্শকদের সামলানোর পর সাংবাদিকদের সাথে কথা বলেন লিপস্টিক টিম। সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে পূজা চেরি বলেন, ‘আমাদের কন্টেন্টের জোর আছে, স্টোরিতে জোর আছে, আমরা সবাই আসলে কনফিডেন্ট, যেকারণে আমাদের এক্সপেক্টেশন অনেক হাই- লিপস্টিক সিনেমা নিয়ে।’

লিপস্টিক দেখতে দর্শকরা কেন হলে আসবে জানতে চাইলে পূজা চেরি বলেন, ‘আমরা আসলে দিনশেষে ভালো গল্প দেখতে চাই। ভালো নির্মাণ দেখতে চাই। সব মিলিয়ে আসলে ফুল প্যাকেজিংই ভালো দেখতে চাই। প্যাকেজিং যদি ভালো দেখতে পারি, তার মধ্যে যদি প্রোডাক্টটা ভালো হয় তাহলে আসলে আগ্রহ নিয়ে দেখে। লিপস্টিক সিনেমাটি খুব যত্ন সহকারে করা। খুব ভালোও হয়েছে। এজন্য আসলে দর্শক দেখতে যাবে।’

দর্শকদের খুব ভালো সাড়া পাচ্ছি জানিয়ে পূজা চেরি বলেন, ‘আমি তো বেশ কিছু সিনেমা করেছি। এর মধ্যে অধিকাংশ সিনেমার দর্শকই প্রশংসা করেছে। তবে কিছু কিছু দর্শক একটু নেগেটিভ কথাও বলেছে। তবে লিপস্টিকের ক্ষেত্রে আমি বলতে পারি, এখনও পর্যন্ত কোনো নেগেটিভ ভাইভও পাইনি, নেগেটিভ ফিডব্যাকও পাইনি। এই ব্যাপারটা আসলে আমাদের সবার জন্য খুবই ভালো। এখন পর্যন্ত যে যে সিনেমা হলে গিয়েছি, সবগুলো সিনেমা হলের দর্শকই খুব পজিটিভ। আমরা সিনেমার শেষে হলগুলোতে গিয়েছি দর্শকদের কেমন লেগেছে, এটা জানার জন্য। তারা সবাই খুব এক্সাইটেড ছিল।’

শাবনূরের সঙ্গে তুলনা প্রসঙ্গে পূজা চেরি বলেন, ‘কিংবদন্তি কোনো আর্টিস্টের সঙ্গে যখন তুলনা দেন, তখন অবশ্যই ভালো লাগে। তবে আমরা যারা নতুন এসেছি এবং কাজ করছি, তারা আসলে নিজের পরিচয়ে নিজেদের পরিচিত করতে চাই। আমিও চাই সবাই যেন আমাকে আমার নামে চেনে। আর শাবনূর আপুর নাম তো ভালোলাগার নাম। ভালোবাসার নাম। তার ভক্ত সবাই আছে। আমি নিজেও ব্যক্তিগতভাবে তার অনেক বড় ভক্ত। তিনি ব্যক্তি হিসেবে অনেক ভালো একজন মানুষ। তাই তার সঙ্গে আসলে তুলনা করবেন না। কারণ শাবনূর আপু একজনই। তার মতো কেউ হতেও পারবে না, তার মতো হওয়ার চেষ্টা করতে গেলেও আসলে ফেইল হবে। তাই আমি চেষ্টা করতে চাই। আমি আমার মতো নিজের পরিচয়ে বড় হতে চাই।’