ঢাকা , রবিবার, ১৯ মে ২০২৪, ৫ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

আয় বেড়েছে খাদ্য খাতের ৬ কোম্পানির

  • ডেস্ক :
  • আপডেট সময় ১১:৪৬ পূর্বাহ্ন, সোমবার, ১৩ মে ২০২৪
  • 14

শেয়ারবাজারে তালিকাভুক্তখাদ্য ও আনুষঙ্গিক খাতের ২১টি কোম্পানির মধ্যে এই পর্যন্ত ১৮টি কোম্পানির তৃতীয় প্রান্তিক এবং ১টি কোম্পানির আর্থিক প্রতিবেদন প্রকাশ করা হয়েছে। প্রকাশিত আর্থিক প্রতিবেদন অনুযায়ী, তৃতীয় প্রান্তিকে শেয়ারপ্রতি আয় (ইপিএস) বেড়েছে ৬ কোম্পানির। একই সময়ে আয় কমেছে ৬ কোম্পানির এবং লোকসানে রয়েছে ৬ কোম্পানি। এছাড়া, প্রথম প্রান্তিকে আয় কমেছে ইউনিলিভার কনজুমার কেয়ারের।

আয় বৃদ্ধির কোম্পানিগুলো হলো- অলিম্পিক ইন্ডাস্ট্রিজ, ফু ওয়াং ফুড, বিচ হ্যাচারি, ফাইন ফুডস, বিডি থাই ফুড এবং লাভেলো আইস্ক্রিম।

অলিম্পিক ইন্ডাস্ট্রিজ

তৃতীয় প্রান্তিকে (জানুয়ারি-মার্চ’২৪) কোম্পানিটির শেয়ার প্রতি আয় (ইপিএস) হয়েছে ২ টাকা ১২ পয়সা। গত বছর একই সময়ে আয় হয়েছিল ১ টাকা ৪ পয়সা। অর্থাৎ গত বছরের একই সময়ের তুলনায় আয় বেড়েছে ১ টাকা ৮ পয়সা।

অর্থবছরের প্রথম তিন প্রান্তিক মিলিয়ে তথা ৯ মাসে (জুলাই’২৩-মার্চ’২৪) কোম্পানিটির শেয়ার প্রতি আয় হয়েছে ৭ টাকা ৮৮ পয়সা। যেখানে আগের বছর একই সময়ে আয় হয়েছিল ৭ টাকা ৩০ পয়সা।

ফু ওয়াং ফুড

তৃতীয় প্রান্তিকে (জানুয়ারি-মার্চ’২৪) কোম্পানিটির শেয়ার প্রতি আয় (ইপিএস) হয়েছে ০৪ পয়সা। আগের অর্থবছরের একই সময়ে ইপিএস হয়েছিল ০৩ পয়সা। অর্থাৎ গত বছরের একই সময়ের তুলনায় আয় বেড়েছে ১ পয়সা।

অর্থবছরের তিন প্রান্তিকে বা ৯ মাসে (জুলাই ২৩-মার্চ ২৪) কোম্পানিটির ৩৭ পয়সা লোকসান হয়েছে। আগের অর্থবছরের একই সময়ে ইপিএস হয়েছিল ১৭ পয়সা।

বিচ হ্যাচারি

তৃতীয় প্রান্তিকে (জানুয়ারি-মার্চ’২৪) কোম্পানিটির শেয়ার প্রতি আয় (ইপিএস) হয়েছে ৬০ পয়সা। আগের অর্থবছরের একই সময়ে ইপিএস হয়েছিল ৩২ পয়সা। অর্থাৎ গত বছরের একই সময়ের তুলনায় আয় বেড়েছে ২৮ পয়সা।

অর্থবছরের তিন প্রান্তিকে বা ৯ মাসে (জুলাই ২৩-মার্চ ২৪) কোম্পানিটির ইপিএস হয়েছে ১ টাকা ৯২ পয়সা। আগের অর্থবছরের একই সময়ে ইপিএস হয়েছিল ৯২ পয়সা।

ফাইন ফুডস

তৃতীয় প্রান্তিকে (জানুয়ারি-মার্চ’২৪) কোম্পানিটির শেয়ার প্রতি আয় (ইপিএস) হয়েছে ১৮ পয়সা। আগের বছর একই সময়ে

অর্থবছরের তিন প্রান্তিকে বা ৯ মাসে (জুলাই’২৩-মার্চ’২৪) কোম্পানিটির শেয়ার প্রতি আয় (ইপিএস) হয়েছে ৫৬ পয়সা। আগের বছর একই সময়ে ইপিএস হয়েছিল ২ পয়সা।

বিডি থাই ফুড

তৃতীয় প্রান্তিকে (জানুয়ারি-মার্চ’২৪) কোম্পানিটির শেয়ার প্রতি আয় (ইপিএস) হয়েছে ১৭ পয়সা। গত বছর একই সময়ে শেয়ার প্রতি ১১ পয়সা আয় হয়েছিল। অর্থাৎ গত বছরের একই সময়ের তুলনায় আয় বেড়েছে ৬ পয়সা।

অন্যদিকে তিন প্রান্তিক (জুলাই ২৩-মার্চ ২৪) মিলিয়ে কোম্পানিটির ৪৮ পয়সা আয় হয়েছে। গতবছর একই সময়ে ৫৮ পয়সা আয় হয়েছিল।

লাভেলো আইস্ক্রিম

তৃতীয় প্রান্তিকে কোম্পানিটির কোম্পানিটির শেয়ার প্রতি আয় (ইপিএস) হয়েছে ৭১ পয়সা। যা আগের বছর একই সময়ে ছিল ৪১ পয়সা। অর্থাৎ শেয়ার প্রতি আয় বেড়েছে ৭৩ শতাংশ।

অন্যদিকে চলতি অর্থবছরের ৯ মাসে (জুলাই’২৩ – মার্চ’২৪) কোম্পানিটির কাম্পানিটির শেয়ার প্রতি আয় (ইপিএস) হয়েছে ১ টাকা ২৮ পয়সা। যা আগের বছর একইসময়ে ছিল ১ টাকা ১৪ পয়সা। অর্থাৎ শেয়ার প্রতি আয় বেড়েছে ১২ শতাংশ।

ট্যাগস
জনপ্রিয় সংবাদ

আয় বেড়েছে খাদ্য খাতের ৬ কোম্পানির

আপডেট সময় ১১:৪৬ পূর্বাহ্ন, সোমবার, ১৩ মে ২০২৪

শেয়ারবাজারে তালিকাভুক্তখাদ্য ও আনুষঙ্গিক খাতের ২১টি কোম্পানির মধ্যে এই পর্যন্ত ১৮টি কোম্পানির তৃতীয় প্রান্তিক এবং ১টি কোম্পানির আর্থিক প্রতিবেদন প্রকাশ করা হয়েছে। প্রকাশিত আর্থিক প্রতিবেদন অনুযায়ী, তৃতীয় প্রান্তিকে শেয়ারপ্রতি আয় (ইপিএস) বেড়েছে ৬ কোম্পানির। একই সময়ে আয় কমেছে ৬ কোম্পানির এবং লোকসানে রয়েছে ৬ কোম্পানি। এছাড়া, প্রথম প্রান্তিকে আয় কমেছে ইউনিলিভার কনজুমার কেয়ারের।

আয় বৃদ্ধির কোম্পানিগুলো হলো- অলিম্পিক ইন্ডাস্ট্রিজ, ফু ওয়াং ফুড, বিচ হ্যাচারি, ফাইন ফুডস, বিডি থাই ফুড এবং লাভেলো আইস্ক্রিম।

অলিম্পিক ইন্ডাস্ট্রিজ

তৃতীয় প্রান্তিকে (জানুয়ারি-মার্চ’২৪) কোম্পানিটির শেয়ার প্রতি আয় (ইপিএস) হয়েছে ২ টাকা ১২ পয়সা। গত বছর একই সময়ে আয় হয়েছিল ১ টাকা ৪ পয়সা। অর্থাৎ গত বছরের একই সময়ের তুলনায় আয় বেড়েছে ১ টাকা ৮ পয়সা।

অর্থবছরের প্রথম তিন প্রান্তিক মিলিয়ে তথা ৯ মাসে (জুলাই’২৩-মার্চ’২৪) কোম্পানিটির শেয়ার প্রতি আয় হয়েছে ৭ টাকা ৮৮ পয়সা। যেখানে আগের বছর একই সময়ে আয় হয়েছিল ৭ টাকা ৩০ পয়সা।

ফু ওয়াং ফুড

তৃতীয় প্রান্তিকে (জানুয়ারি-মার্চ’২৪) কোম্পানিটির শেয়ার প্রতি আয় (ইপিএস) হয়েছে ০৪ পয়সা। আগের অর্থবছরের একই সময়ে ইপিএস হয়েছিল ০৩ পয়সা। অর্থাৎ গত বছরের একই সময়ের তুলনায় আয় বেড়েছে ১ পয়সা।

অর্থবছরের তিন প্রান্তিকে বা ৯ মাসে (জুলাই ২৩-মার্চ ২৪) কোম্পানিটির ৩৭ পয়সা লোকসান হয়েছে। আগের অর্থবছরের একই সময়ে ইপিএস হয়েছিল ১৭ পয়সা।

বিচ হ্যাচারি

তৃতীয় প্রান্তিকে (জানুয়ারি-মার্চ’২৪) কোম্পানিটির শেয়ার প্রতি আয় (ইপিএস) হয়েছে ৬০ পয়সা। আগের অর্থবছরের একই সময়ে ইপিএস হয়েছিল ৩২ পয়সা। অর্থাৎ গত বছরের একই সময়ের তুলনায় আয় বেড়েছে ২৮ পয়সা।

অর্থবছরের তিন প্রান্তিকে বা ৯ মাসে (জুলাই ২৩-মার্চ ২৪) কোম্পানিটির ইপিএস হয়েছে ১ টাকা ৯২ পয়সা। আগের অর্থবছরের একই সময়ে ইপিএস হয়েছিল ৯২ পয়সা।

ফাইন ফুডস

তৃতীয় প্রান্তিকে (জানুয়ারি-মার্চ’২৪) কোম্পানিটির শেয়ার প্রতি আয় (ইপিএস) হয়েছে ১৮ পয়সা। আগের বছর একই সময়ে

অর্থবছরের তিন প্রান্তিকে বা ৯ মাসে (জুলাই’২৩-মার্চ’২৪) কোম্পানিটির শেয়ার প্রতি আয় (ইপিএস) হয়েছে ৫৬ পয়সা। আগের বছর একই সময়ে ইপিএস হয়েছিল ২ পয়সা।

বিডি থাই ফুড

তৃতীয় প্রান্তিকে (জানুয়ারি-মার্চ’২৪) কোম্পানিটির শেয়ার প্রতি আয় (ইপিএস) হয়েছে ১৭ পয়সা। গত বছর একই সময়ে শেয়ার প্রতি ১১ পয়সা আয় হয়েছিল। অর্থাৎ গত বছরের একই সময়ের তুলনায় আয় বেড়েছে ৬ পয়সা।

অন্যদিকে তিন প্রান্তিক (জুলাই ২৩-মার্চ ২৪) মিলিয়ে কোম্পানিটির ৪৮ পয়সা আয় হয়েছে। গতবছর একই সময়ে ৫৮ পয়সা আয় হয়েছিল।

লাভেলো আইস্ক্রিম

তৃতীয় প্রান্তিকে কোম্পানিটির কোম্পানিটির শেয়ার প্রতি আয় (ইপিএস) হয়েছে ৭১ পয়সা। যা আগের বছর একই সময়ে ছিল ৪১ পয়সা। অর্থাৎ শেয়ার প্রতি আয় বেড়েছে ৭৩ শতাংশ।

অন্যদিকে চলতি অর্থবছরের ৯ মাসে (জুলাই’২৩ – মার্চ’২৪) কোম্পানিটির কাম্পানিটির শেয়ার প্রতি আয় (ইপিএস) হয়েছে ১ টাকা ২৮ পয়সা। যা আগের বছর একইসময়ে ছিল ১ টাকা ১৪ পয়সা। অর্থাৎ শেয়ার প্রতি আয় বেড়েছে ১২ শতাংশ।