ঢাকা , মঙ্গলবার, ২৩ জুলাই ২০২৪, ৮ শ্রাবণ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

বাংলাদেশে মুক্তি পাচ্ছে ‘মিস্টার অ্যান্ড মিসেস মাহি’

  • ডেস্ক :
  • আপডেট সময় ০১:১৩ অপরাহ্ন, শনিবার, ১ জুন ২০২৪
  • 40

ভারতের সঙ্গে একই দিনে বাংলাদেশে মুক্তি পেয়েছে জাহ্নবী কাপুর ও রাজকুমার রাও অভিনীত বলিউড সিনেমা ‘মিস্টার অ্যান্ড মিসেস মাহি’। দেশের ২৬টি প্রেক্ষাগৃহে সিনেমাটির মুক্তির বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন আমদানিকারক প্রতিষ্ঠান অ্যাকশন কাট এন্টারটেইনমেন্টের কর্ণধার অনন্য মামুন।

সিনেমাটি নিয়ে ভারতের সঙ্গে এদেশের দর্শকেরা বেশ উত্তেজিত ছিল। এ সিনেমায় কাজের অভিজ্ঞতা বলতে গিয়ে জাহ্নবী বলেন, ‘সিনেমার বেশিরভাগ রোমান্টিক শুট করার সময় আমি আর রাজ ক্লান্ত থাকতাম। যেমন আমার মনে আছে, আমাদের প্রথম রোমান্টিক দৃশ্য শুটের কথা। তার আগে আমরা প্রায় ২০ ঘণ্টা কাজ করেছিলাম। তারপর যখন এ দৃশ্যটির শুটিং শুরু হলো তখন আমরা প্রচণ্ড ক্লান্ত, আমাদের শরীরে আর কিছু নেই, একেবারে মড়মড় অবস্থা’।

তিনি আরও বলেন, ‘তার ওপর আবার আমাদের পেটও খারাপ, শরীরও আর দিচ্ছে না। তারমধ্যে ক্যামেরার সামনে ভাবটা দেখাতে হচ্ছে যেন আমরা একে অপরের প্রেমে হাবুডুবু খাচ্ছি। প্রথমবার একে অপরকে চুমু খেতে যাচ্ছি। কিন্তু আমরা আসলে ভিতরে ভিতরে তখন শেষ হয়ে যাচ্ছিলাম।’

মিস্টার অ্যান্ড মিসেস মাহি পরিচালনা করেছেন স্মরণ শর্মা। প্রযোজনায় করণ জোহর। গল্পে রাজকুমারকে দেখা যাবে এক ব্যর্থ ক্রিকেটারের ভূমিকায়। তার চরিত্রের নাম মাহেন্দ্র।

নিজে খেলোয়াড় হতে না পারলেও ক্রিকেটের খুব ভক্ত সে। আর জাহ্নবীর চরিত্রের নাম মাহিমা, পেশায় চিকিৎসক। পারিবারিকভাবে তাদের বিয়ে হয়। দুজনের নামের আদ্যাক্ষর এক হওয়ায় মিস্টার অ্যান্ড মিসেস মাহি নামে পরিচিতি পায় তারা। ধীরে ধীরে তারা বুঝতে পারে, ক্রিকেট দুজনেরই পছন্দের। মাহিমা পেশায় চিকিৎসক হলেও ব্যাটিংয়ে পারদর্শী। স্ত্রীকে ক্রিকেটার বানানোর জন্য উঠেপড়ে নামে মাহেন্দ্র।

গত বছর থেকে বাংলাদেশের হলে চলছে বলিউডের সিনেমা। শাহরুখ খানের ‘পাঠান’ দিয়ে শুরু, এরপর একে একে মুক্তি পেয়েছে ‘কিসি কা ভাই কিসি কি জান’, ‘জওয়ান’, ‘অ্যানিমেল’, ‘ডানকি’ ও ‘ক্রু’। এবার সেই তালিকায় যুক্ত হলো ‘মিস্টার অ্যান্ড মিসেস মাহি’।

ট্যাগস

বাংলাদেশে মুক্তি পাচ্ছে ‘মিস্টার অ্যান্ড মিসেস মাহি’

আপডেট সময় ০১:১৩ অপরাহ্ন, শনিবার, ১ জুন ২০২৪

ভারতের সঙ্গে একই দিনে বাংলাদেশে মুক্তি পেয়েছে জাহ্নবী কাপুর ও রাজকুমার রাও অভিনীত বলিউড সিনেমা ‘মিস্টার অ্যান্ড মিসেস মাহি’। দেশের ২৬টি প্রেক্ষাগৃহে সিনেমাটির মুক্তির বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন আমদানিকারক প্রতিষ্ঠান অ্যাকশন কাট এন্টারটেইনমেন্টের কর্ণধার অনন্য মামুন।

সিনেমাটি নিয়ে ভারতের সঙ্গে এদেশের দর্শকেরা বেশ উত্তেজিত ছিল। এ সিনেমায় কাজের অভিজ্ঞতা বলতে গিয়ে জাহ্নবী বলেন, ‘সিনেমার বেশিরভাগ রোমান্টিক শুট করার সময় আমি আর রাজ ক্লান্ত থাকতাম। যেমন আমার মনে আছে, আমাদের প্রথম রোমান্টিক দৃশ্য শুটের কথা। তার আগে আমরা প্রায় ২০ ঘণ্টা কাজ করেছিলাম। তারপর যখন এ দৃশ্যটির শুটিং শুরু হলো তখন আমরা প্রচণ্ড ক্লান্ত, আমাদের শরীরে আর কিছু নেই, একেবারে মড়মড় অবস্থা’।

তিনি আরও বলেন, ‘তার ওপর আবার আমাদের পেটও খারাপ, শরীরও আর দিচ্ছে না। তারমধ্যে ক্যামেরার সামনে ভাবটা দেখাতে হচ্ছে যেন আমরা একে অপরের প্রেমে হাবুডুবু খাচ্ছি। প্রথমবার একে অপরকে চুমু খেতে যাচ্ছি। কিন্তু আমরা আসলে ভিতরে ভিতরে তখন শেষ হয়ে যাচ্ছিলাম।’

মিস্টার অ্যান্ড মিসেস মাহি পরিচালনা করেছেন স্মরণ শর্মা। প্রযোজনায় করণ জোহর। গল্পে রাজকুমারকে দেখা যাবে এক ব্যর্থ ক্রিকেটারের ভূমিকায়। তার চরিত্রের নাম মাহেন্দ্র।

নিজে খেলোয়াড় হতে না পারলেও ক্রিকেটের খুব ভক্ত সে। আর জাহ্নবীর চরিত্রের নাম মাহিমা, পেশায় চিকিৎসক। পারিবারিকভাবে তাদের বিয়ে হয়। দুজনের নামের আদ্যাক্ষর এক হওয়ায় মিস্টার অ্যান্ড মিসেস মাহি নামে পরিচিতি পায় তারা। ধীরে ধীরে তারা বুঝতে পারে, ক্রিকেট দুজনেরই পছন্দের। মাহিমা পেশায় চিকিৎসক হলেও ব্যাটিংয়ে পারদর্শী। স্ত্রীকে ক্রিকেটার বানানোর জন্য উঠেপড়ে নামে মাহেন্দ্র।

গত বছর থেকে বাংলাদেশের হলে চলছে বলিউডের সিনেমা। শাহরুখ খানের ‘পাঠান’ দিয়ে শুরু, এরপর একে একে মুক্তি পেয়েছে ‘কিসি কা ভাই কিসি কি জান’, ‘জওয়ান’, ‘অ্যানিমেল’, ‘ডানকি’ ও ‘ক্রু’। এবার সেই তালিকায় যুক্ত হলো ‘মিস্টার অ্যান্ড মিসেস মাহি’।