ঢাকা , শুক্রবার, ২১ জুন ২০২৪, ৭ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

বিশ্বের সবচেয়ে বয়স্ক বিড়াল মিলি

  • ডেস্ক :
  • আপডেট সময় ১২:৪২ অপরাহ্ন, শনিবার, ৮ জুন ২০২৪
  • 13

বিড়াল অনেকেরই প্রিয় পোষ্য। একসময় পোষ্য বিড়াল একেবারে ঘরের সদস্য হয়ে যায়। সারাক্ষণের সঙ্গী এই ছোট্ট সুন্দর প্রাণীটি। তবে একটি বিড়ালকে বেশিদিন সঙ্গে রাখা যায় না। কারণ বিড়ালের আয়ু মানুষের মতো এতো বেশি না। খুব বেশি হলে ১৩ থেকে ১৫ বছর।

তবে ইংল্যান্ডে বসবাস করা বিড়াল মিলির বয়স এখন ২৯ বছর। তাহলে বলা যায়, সেই বিশ্বের সবচেয়ে বয়স্ক বিড়াল এই মুহূর্তে। তার আগে এই স্থান ছিল ফ্লোসি নামে একটি ২৮ বছর বয়সী বিড়ালের। যদিও গিনেস বুক অব ওয়ার্ল্ড রেকর্ড এখনো মিলিকে স্বীকৃতি দেয়নি। তবে খুব শিগগির সেই ঘোষণা আসতে পারে।

ইংল্যান্ডের নাগরিক লেসলি গ্রিনহফের বিড়াল মিলি। ৬৯ বছর বয়সী লেসলি গ্রিনহফের মিলি নামের এই বিড়ালটির বয়স ২৯ বছর হতে চলেছে। মিলির বয়স যখন ৩ মাস তখন লেসলির স্ত্রী তাকে বাড়িতে নিয়ে আসেন। তখন থেকেই মিলি তাদের সঙ্গে আছে।

লেসলির মতে, মিলির জন্ম ১৯৯৫ সালে। তিনি তার পরিবারের সদস্য বলে মনে করেন বিড়ালটিকে। লেসলি গ্রিনহফ বলেছেন, ‘আমি আমার স্ত্রীর স্মরণে মিলিকে উপাধি দিতে চাই। এই খেতাব তার নামেই থাকবে। প্রত্যেকেরই জানা উচিত যে ও কতটা দুর্দান্ত বিড়াল!

লেসলি গ্রিনহফ আত্মবিশ্বাসী যে মিলি বিশ্বের সবচেয়ে বয়স্ক জীবিত বিড়ালের মুকুট পাবে। মিলি এখনো লাফ দিতে পারে। তবে সময়ের সঙ্গে সঙ্গে কিছুটা ধীর হয়ে গেছে। বর্তমানে মিলির কথা শুনতে একটু কষ্ট হচ্ছে।

লেসলির দাবি, মিলিকে কখনো পশু চিকিৎসকের কাছে নিতে হয়নি। সে মুরগির এবং পুরিনা বিড়ালের জন্য যে প্যাকেটজাত মিশ্র খাবার আছে সেগুলোই খায়। এছাড়া সে টিনজাত টুনা খেতেও ভীষণ পছন্দ করে।

লেসলির স্ত্রী পাওলা ছিলেন মিলির প্রথম মালিক। পাওলার ঘরের প্রিতিটি মুহূর্ত কাটত মিলির সঙ্গে। করোনা মহামারির সময় পাওলা মারা যায়। পেশায় স্টোরকিপার লেসলিও ততদিনে অবসরে এসেছেন। তারপর থেকে তিনিই মিলির দেখাশোনা করছেন। এখন তার সময় কাটে মিলির সঙ্গে খেলা করে।

সূত্র: ইয়াহো নিউজ ইউকে

ট্যাগস

বিশ্বের সবচেয়ে বয়স্ক বিড়াল মিলি

আপডেট সময় ১২:৪২ অপরাহ্ন, শনিবার, ৮ জুন ২০২৪

বিড়াল অনেকেরই প্রিয় পোষ্য। একসময় পোষ্য বিড়াল একেবারে ঘরের সদস্য হয়ে যায়। সারাক্ষণের সঙ্গী এই ছোট্ট সুন্দর প্রাণীটি। তবে একটি বিড়ালকে বেশিদিন সঙ্গে রাখা যায় না। কারণ বিড়ালের আয়ু মানুষের মতো এতো বেশি না। খুব বেশি হলে ১৩ থেকে ১৫ বছর।

তবে ইংল্যান্ডে বসবাস করা বিড়াল মিলির বয়স এখন ২৯ বছর। তাহলে বলা যায়, সেই বিশ্বের সবচেয়ে বয়স্ক বিড়াল এই মুহূর্তে। তার আগে এই স্থান ছিল ফ্লোসি নামে একটি ২৮ বছর বয়সী বিড়ালের। যদিও গিনেস বুক অব ওয়ার্ল্ড রেকর্ড এখনো মিলিকে স্বীকৃতি দেয়নি। তবে খুব শিগগির সেই ঘোষণা আসতে পারে।

ইংল্যান্ডের নাগরিক লেসলি গ্রিনহফের বিড়াল মিলি। ৬৯ বছর বয়সী লেসলি গ্রিনহফের মিলি নামের এই বিড়ালটির বয়স ২৯ বছর হতে চলেছে। মিলির বয়স যখন ৩ মাস তখন লেসলির স্ত্রী তাকে বাড়িতে নিয়ে আসেন। তখন থেকেই মিলি তাদের সঙ্গে আছে।

লেসলির মতে, মিলির জন্ম ১৯৯৫ সালে। তিনি তার পরিবারের সদস্য বলে মনে করেন বিড়ালটিকে। লেসলি গ্রিনহফ বলেছেন, ‘আমি আমার স্ত্রীর স্মরণে মিলিকে উপাধি দিতে চাই। এই খেতাব তার নামেই থাকবে। প্রত্যেকেরই জানা উচিত যে ও কতটা দুর্দান্ত বিড়াল!

লেসলি গ্রিনহফ আত্মবিশ্বাসী যে মিলি বিশ্বের সবচেয়ে বয়স্ক জীবিত বিড়ালের মুকুট পাবে। মিলি এখনো লাফ দিতে পারে। তবে সময়ের সঙ্গে সঙ্গে কিছুটা ধীর হয়ে গেছে। বর্তমানে মিলির কথা শুনতে একটু কষ্ট হচ্ছে।

লেসলির দাবি, মিলিকে কখনো পশু চিকিৎসকের কাছে নিতে হয়নি। সে মুরগির এবং পুরিনা বিড়ালের জন্য যে প্যাকেটজাত মিশ্র খাবার আছে সেগুলোই খায়। এছাড়া সে টিনজাত টুনা খেতেও ভীষণ পছন্দ করে।

লেসলির স্ত্রী পাওলা ছিলেন মিলির প্রথম মালিক। পাওলার ঘরের প্রিতিটি মুহূর্ত কাটত মিলির সঙ্গে। করোনা মহামারির সময় পাওলা মারা যায়। পেশায় স্টোরকিপার লেসলিও ততদিনে অবসরে এসেছেন। তারপর থেকে তিনিই মিলির দেখাশোনা করছেন। এখন তার সময় কাটে মিলির সঙ্গে খেলা করে।

সূত্র: ইয়াহো নিউজ ইউকে