ঢাকা , রবিবার, ২৩ জুন ২০২৪, ৯ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

ডেঙ্গু চিকিৎসায় বাড়তি খরচ নিলেই ব্যবস্থা : স্বাস্থ্য সচিব

  • ডেস্ক :
  • আপডেট সময় ০৯:৩২ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ১৮ জুলাই ২০২৩
  • 256

দেশের সরকারি হাসপাতালের পাশাপাশি বেসকারি হাসপাতালেও বাড়ছে ডেঙ্গু রোগীদের চাপ। রোগীদের কাছ থেকে মাত্রাতিরিক্ত খরচ প্রসঙ্গে বেসরকারি হাসপাতালগুলোকে সতর্ক করেছেন স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রণালয়ের স্বাস্থ্য সেবা বিভাগের সচিব ড. আনোয়ার হোসেন হাওলাদার।

তিনি বলেন, বিভিন্ন বেসরকারি হাসপাতাল ডেঙ্গু আক্রান্ত রোগীদের থেকে অতিরিক্ত অর্থ আদায় করছে বলে আমাদের কাছে অভিযোগ আসছে। বিষয়টি নিয়ে স্বাস্থ্য অধিদপ্তরকেও সতর্ক থাকতে হবে।

রোববার (১৬ জুলাই) দুপুরে দেশের চলমান ডেঙ্গু সংক্রমণ পরিস্থিতি নিয়ে স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের ভার্চুয়াল সংবাদ সম্মেলনে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

স্বাস্থ্য সচিব বলেন, বিভিন্ন বেসরকারি হাসপাতালে ডেঙ্গু চিকিৎসায় অতিরিক্ত খরচ নেওয়া হচ্ছে। স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের ডাইরেক্টদের বলছি, এ বিষয়ে দ্রুত খোঁজ নিতে হবে। বেসরকারি যেসব হাসপাতালেই ডেঙ্গু রোগী আছেন, সেগুলোতে টিম পাঠাতে হবে এবং অভিযোগ পেলে আইনানুগ ব্যবস্থা নিতে হবে।

তিনি বলেন, ডেঙ্গু চিকিৎসায় ঢাকায় সমস্ত হাসপাতালে প্রিপারেশন দেখতে হবে। রোগীদের যেন বেশি ব্যয় না হয়, সে বিষয়ে খেয়াল রাখবেন। ডেঙ্গু পরীক্ষার রিপোর্ট দিতে দেরি করলে হাসপাতালের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিতে হবে। এ বিষয়ে আজই একটা নোটিশ জারি করে দেন।

সচিব বলেন, আমরা চাই সরকারি হাসপাতালেই যেন ডেঙ্গু রোগীরা আসেন এবং চিকিৎসা নেন। কিন্তু নিজ ইচ্ছাতেই যদি বেসরকারি হাসপাতালে কেউ যেতে চান, যেতে পারেন। তবে সরকারি হাসপাতালে ডেঙ্গু সংক্রমণের ভালো চিকিৎসা দেওয়া হয়।

আনোয়ার হোসেন হাওলাদার বলেন, বাংলাদেশ মেডিকেল অ্যাসোসিয়েশনের কর্মকর্তারা (বিএমএ) মুগদা হাসপাতালে অনুষ্ঠান করেছেন। অর্থাৎ একটা হাসপাতালে অনুষ্ঠান করার মতো অবস্থা এখনও আছে। তাহলে বোঝা যাচ্ছে, পরিস্থিতি খুব খারাপ হলে তারা সেখানে যেতেন না। পাবলিক হেলথ ইমার্জেন্সি ঘোষণা করার মতো অবস্থা এখনও হয়নি।

ট্যাগস

ডেঙ্গু চিকিৎসায় বাড়তি খরচ নিলেই ব্যবস্থা : স্বাস্থ্য সচিব

আপডেট সময় ০৯:৩২ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ১৮ জুলাই ২০২৩

দেশের সরকারি হাসপাতালের পাশাপাশি বেসকারি হাসপাতালেও বাড়ছে ডেঙ্গু রোগীদের চাপ। রোগীদের কাছ থেকে মাত্রাতিরিক্ত খরচ প্রসঙ্গে বেসরকারি হাসপাতালগুলোকে সতর্ক করেছেন স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রণালয়ের স্বাস্থ্য সেবা বিভাগের সচিব ড. আনোয়ার হোসেন হাওলাদার।

তিনি বলেন, বিভিন্ন বেসরকারি হাসপাতাল ডেঙ্গু আক্রান্ত রোগীদের থেকে অতিরিক্ত অর্থ আদায় করছে বলে আমাদের কাছে অভিযোগ আসছে। বিষয়টি নিয়ে স্বাস্থ্য অধিদপ্তরকেও সতর্ক থাকতে হবে।

রোববার (১৬ জুলাই) দুপুরে দেশের চলমান ডেঙ্গু সংক্রমণ পরিস্থিতি নিয়ে স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের ভার্চুয়াল সংবাদ সম্মেলনে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

স্বাস্থ্য সচিব বলেন, বিভিন্ন বেসরকারি হাসপাতালে ডেঙ্গু চিকিৎসায় অতিরিক্ত খরচ নেওয়া হচ্ছে। স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের ডাইরেক্টদের বলছি, এ বিষয়ে দ্রুত খোঁজ নিতে হবে। বেসরকারি যেসব হাসপাতালেই ডেঙ্গু রোগী আছেন, সেগুলোতে টিম পাঠাতে হবে এবং অভিযোগ পেলে আইনানুগ ব্যবস্থা নিতে হবে।

তিনি বলেন, ডেঙ্গু চিকিৎসায় ঢাকায় সমস্ত হাসপাতালে প্রিপারেশন দেখতে হবে। রোগীদের যেন বেশি ব্যয় না হয়, সে বিষয়ে খেয়াল রাখবেন। ডেঙ্গু পরীক্ষার রিপোর্ট দিতে দেরি করলে হাসপাতালের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিতে হবে। এ বিষয়ে আজই একটা নোটিশ জারি করে দেন।

সচিব বলেন, আমরা চাই সরকারি হাসপাতালেই যেন ডেঙ্গু রোগীরা আসেন এবং চিকিৎসা নেন। কিন্তু নিজ ইচ্ছাতেই যদি বেসরকারি হাসপাতালে কেউ যেতে চান, যেতে পারেন। তবে সরকারি হাসপাতালে ডেঙ্গু সংক্রমণের ভালো চিকিৎসা দেওয়া হয়।

আনোয়ার হোসেন হাওলাদার বলেন, বাংলাদেশ মেডিকেল অ্যাসোসিয়েশনের কর্মকর্তারা (বিএমএ) মুগদা হাসপাতালে অনুষ্ঠান করেছেন। অর্থাৎ একটা হাসপাতালে অনুষ্ঠান করার মতো অবস্থা এখনও আছে। তাহলে বোঝা যাচ্ছে, পরিস্থিতি খুব খারাপ হলে তারা সেখানে যেতেন না। পাবলিক হেলথ ইমার্জেন্সি ঘোষণা করার মতো অবস্থা এখনও হয়নি।