ঢাকা , রবিবার, ২৩ জুন ২০২৪, ৯ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

আ’লীগ নেতার বৃদ্ধ মায়ের কান ছিঁড়ে দুল নিয়ে গেলো চোর

  • ডেস্ক :
  • আপডেট সময় ০৫:৪৩ অপরাহ্ন, রবিবার, ২৩ জুলাই ২০২৩
  • 320

শরীয়তপুরের ভেদরগঞ্জে এক আওয়ামী লীগ নেতার বাসায় চুরির ঘটনা ঘটেছে। পাঁচ ভরি স্বর্ণালঙ্কার, নগদ ৩৫ হাজার টাকা ও দুটি মোবাইল ফোন নিয়ে গেছে চোরেরা। টান মেরে দুল ছিনিয়ে নেওয়ার সময় আওয়ামী লীগ নেতার বৃদ্ধা মায়ের কান ছিঁড়ে গেছে।

শনিবার (২২ জুলাই) দিনগত রাত আড়াইটার দিকে উপজেলার রামভদ্রপুর ইউনিয়নের ৯ নম্বর ওয়ার্ডের সিংজালা গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।

ভুক্তভোগী তাহের হাওলাদার (৫২) ভেদরগঞ্জ থানা আওয়ামী লীগের কমিটিতে সদস্য পদে রয়েছেন।

এ ঘটনায় করা অভিযোগের পরিপ্রেক্ষিতে তিনজনকে আটক করেছে পুলিশ। তারা হলেন রামভদ্রপুর ইউনিয়নের ৯ নম্বর ওয়ার্ডের চর কোরালতলি গ্রামের মৃত সিকিম আলী ব্যাপারীর ছেলে আব্বাস বেপারী (৪৫), সিংজালা গ্রামের জাকির সরদারের ছেলে রবিউল সরদার (১৮) ও শাহজাহান পেদার ছেলে সুজন পেদা (২৮)।

তাহের হাওলাদারের মা বাহার বেগম (৯০) বলেন, ‘আমি ঘুমিয়ে ছিলাম। হঠাৎ দেখি আমার কান ব্যথা করছে। পরে কানে হাত দিয়ে দেখি দুল নেই। আমার হাতে রক্ত লেগে আছে। চোর আমার কানের লতি ছিঁড়ে সোনার দুল নিয়ে পালিয়ে গেছে।’

এ বিষয়ে তাহের হাওলাদার বলেন, ‘আমার দুইটা বাড়ি। আমি নদীপাড়ের বাড়িতে রাত্রিযাপন করেছিলাম। রাত সোয়া ৩টার দিকে আমার ছোট বোন সালমা ফোন করে ঘটনাটি জানান। তখনই বাড়িতে গিয়ে দেখি আমার মায়ের কান ছিঁড়ে সোনার দুল ও বোনের গলা থেকে চেইন নিয়ে গেছে। চোর উত্তরের ঘর থেকে চাবি খুঁজে পেয়ে দক্ষিণের ঘর খুলে পাঁচ ভরি সোনা ও নগদ ৩৫ হাজার টাকাসহ লক্ষাধিক টাকার মালামাল নিয়ে গেছে। এ ঘটনায় আমি থানায় অভিযোগ করেছি। পুলিশ সন্দেহভাজন তিনজনকে আটক করেছে।’

ভেদরগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) ওবায়দুল হক বলেন, চুরির ঘটনায় ভুক্তভোগী থানায় অভিযোগ করেছেন। চোরদের ধরতে পুলিশের চেষ্টা অব্যাহত আছে।

ট্যাগস

আ’লীগ নেতার বৃদ্ধ মায়ের কান ছিঁড়ে দুল নিয়ে গেলো চোর

আপডেট সময় ০৫:৪৩ অপরাহ্ন, রবিবার, ২৩ জুলাই ২০২৩

শরীয়তপুরের ভেদরগঞ্জে এক আওয়ামী লীগ নেতার বাসায় চুরির ঘটনা ঘটেছে। পাঁচ ভরি স্বর্ণালঙ্কার, নগদ ৩৫ হাজার টাকা ও দুটি মোবাইল ফোন নিয়ে গেছে চোরেরা। টান মেরে দুল ছিনিয়ে নেওয়ার সময় আওয়ামী লীগ নেতার বৃদ্ধা মায়ের কান ছিঁড়ে গেছে।

শনিবার (২২ জুলাই) দিনগত রাত আড়াইটার দিকে উপজেলার রামভদ্রপুর ইউনিয়নের ৯ নম্বর ওয়ার্ডের সিংজালা গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।

ভুক্তভোগী তাহের হাওলাদার (৫২) ভেদরগঞ্জ থানা আওয়ামী লীগের কমিটিতে সদস্য পদে রয়েছেন।

এ ঘটনায় করা অভিযোগের পরিপ্রেক্ষিতে তিনজনকে আটক করেছে পুলিশ। তারা হলেন রামভদ্রপুর ইউনিয়নের ৯ নম্বর ওয়ার্ডের চর কোরালতলি গ্রামের মৃত সিকিম আলী ব্যাপারীর ছেলে আব্বাস বেপারী (৪৫), সিংজালা গ্রামের জাকির সরদারের ছেলে রবিউল সরদার (১৮) ও শাহজাহান পেদার ছেলে সুজন পেদা (২৮)।

তাহের হাওলাদারের মা বাহার বেগম (৯০) বলেন, ‘আমি ঘুমিয়ে ছিলাম। হঠাৎ দেখি আমার কান ব্যথা করছে। পরে কানে হাত দিয়ে দেখি দুল নেই। আমার হাতে রক্ত লেগে আছে। চোর আমার কানের লতি ছিঁড়ে সোনার দুল নিয়ে পালিয়ে গেছে।’

এ বিষয়ে তাহের হাওলাদার বলেন, ‘আমার দুইটা বাড়ি। আমি নদীপাড়ের বাড়িতে রাত্রিযাপন করেছিলাম। রাত সোয়া ৩টার দিকে আমার ছোট বোন সালমা ফোন করে ঘটনাটি জানান। তখনই বাড়িতে গিয়ে দেখি আমার মায়ের কান ছিঁড়ে সোনার দুল ও বোনের গলা থেকে চেইন নিয়ে গেছে। চোর উত্তরের ঘর থেকে চাবি খুঁজে পেয়ে দক্ষিণের ঘর খুলে পাঁচ ভরি সোনা ও নগদ ৩৫ হাজার টাকাসহ লক্ষাধিক টাকার মালামাল নিয়ে গেছে। এ ঘটনায় আমি থানায় অভিযোগ করেছি। পুলিশ সন্দেহভাজন তিনজনকে আটক করেছে।’

ভেদরগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) ওবায়দুল হক বলেন, চুরির ঘটনায় ভুক্তভোগী থানায় অভিযোগ করেছেন। চোরদের ধরতে পুলিশের চেষ্টা অব্যাহত আছে।