ঢাকা , রবিবার, ২৩ জুন ২০২৪, ৯ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

৬০% নগদ লভ্যাংশ দেবে ইবনে সিনা ফার্মাসিউটিক্যালস

  • ডেস্ক :
  • আপডেট সময় ১২:৪৯ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ২৯ অগাস্ট ২০২৩
  • 320

ওষুধ খাতের কোম্পানি ইবনে সিনা ফার্মাসিউটিক্যালস ইন্ডাস্ট্রিজ লিমিটেডের পর্ষদ সর্বশেষ ৩০ জুন সমাপ্ত ২০২২-২৩ হিসাব বছরের জন্য ৬০ শতাংশ নগদ লভ্যাংশের সুপারিশ করেছে। গতকাল অনুষ্ঠিত কোম্পানিটির পরিচালনা পর্ষদের সভা থেকে আলোচ্য হিসাব বছরের নিরীক্ষিত আর্থিক প্রতিবেদন অনুমোদনের পাশাপাশি শেয়ারহোল্ডারদের জন্য এ লভ্যাংশের সুপারিশ করা হয়েছে। এক মূল্যসংবেদনশীল তথ্যে বিষয়টি জানিয়েছে তালিকাভুক্ত কোম্পানিটি।

প্রতিবেদন অনুসারে, সমাপ্ত ২০২২-২৩ হিসাব বছরে কোম্পানিটির সমন্বিত শেয়ারপ্রতি আয় (ইপিএস) হয়েছে ১৯ টাকা ৩৮ পয়সা, আগের হিসাব বছরে যা ছিল ১৯ টাকা ৩৯ পয়সা। গত ৩০ জুন শেষে কোম্পানিটির সমন্বিত শেয়ারপ্রতি নিট সম্পদমূল্য (এনএভিপিএস) দাঁড়িয়েছে ৯৬ টাকা ৬৮ পয়সায়, আগের হিসাব বছর শেষে যা ছিল ৮৩ টাকা ৩৬ পয়সা।

এদিকে ঘোষিত ২০২২-২৩ হিসাব বছরের জন্য ঘোষিত লভ্যাংশ ও আলোচ্য হিসাব বছরের অন্যান্য এজেন্ডায় শেয়ারহোল্ডারদের অনুমোদন নিতে আগামী ২২ অক্টোবর সকাল সাড়ে ৯টায় ভার্চুয়াল মাধ্যমে বার্ষিক সাধারণ সভা (এজিএম) আহ্বান করেছে কোম্পানিটি। এ-সংক্রান্ত রেকর্ড ডেট ধরা হয়েছে আগামী ২১ সেপ্টেম্বর।

৩০ জুন সমাপ্ত ২০২১-২২ হিসাব বছরের জন্য শেয়ারহোল্ডারদের ৬০ শতাংশ নগদ লভ্যাংশ দিয়েছে কোম্পানিটি। আলোচ্য হিসাব বছরে কোম্পানিটির সমন্বিত ইপিএস হয়েছে ১৯ টাকা ৩৯ পয়সা, আগের হিসাব বছরে যা ছিল ১৫ টাকা ৬৬ পয়সা। ৩০ জুন ২০২২ শেষে কোম্পানিটির সমন্বিত এনএভিপিএস দাঁড়ায় ৮৩ টাকা ৩৬ পয়সায়, আগের হিসাব বছর শেষে যা ছিল ৬৮ টাকা ৬৯ পয়সা।

২০২০-২১ হিসাব বছরের জন্য শেয়ারহোল্ডারদের ৪৭ শতাংশ নগদ লভ্যাংশ দিয়েছিল ইবনে সিনা ফার্মা। ২০১৯-২০ হিসাব বছরের জন্য শেয়ারহোল্ডারদের ৩৮ দশমিক ৫ শতাংশ নগদ লভ্যাংশ দিয়েছিল তারা। ২০১৮-১৯ হিসাব বছরের জন্য শেয়ারহোল্ডারদের ৩০ শতাংশ নগদ লভ্যাংশ পায় কোম্পানিটির শেয়ারহোল্ডাররা। আগের হিসাব বছরে ৩০ শতাংশ নগদের পাশাপাশি ১০ শতাংশ স্টক লভ্যাংশ দিয়েছিল কোম্পানিটি। ২০১৬-১৭ হিসাব বছরের জন্য ১০ শতাংশ স্টকের পাশাপাশি ২৫ শতাংশ নগদ লভ্যাংশ দিয়েছিল তারা।

ট্যাগস

৬০% নগদ লভ্যাংশ দেবে ইবনে সিনা ফার্মাসিউটিক্যালস

আপডেট সময় ১২:৪৯ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ২৯ অগাস্ট ২০২৩

ওষুধ খাতের কোম্পানি ইবনে সিনা ফার্মাসিউটিক্যালস ইন্ডাস্ট্রিজ লিমিটেডের পর্ষদ সর্বশেষ ৩০ জুন সমাপ্ত ২০২২-২৩ হিসাব বছরের জন্য ৬০ শতাংশ নগদ লভ্যাংশের সুপারিশ করেছে। গতকাল অনুষ্ঠিত কোম্পানিটির পরিচালনা পর্ষদের সভা থেকে আলোচ্য হিসাব বছরের নিরীক্ষিত আর্থিক প্রতিবেদন অনুমোদনের পাশাপাশি শেয়ারহোল্ডারদের জন্য এ লভ্যাংশের সুপারিশ করা হয়েছে। এক মূল্যসংবেদনশীল তথ্যে বিষয়টি জানিয়েছে তালিকাভুক্ত কোম্পানিটি।

প্রতিবেদন অনুসারে, সমাপ্ত ২০২২-২৩ হিসাব বছরে কোম্পানিটির সমন্বিত শেয়ারপ্রতি আয় (ইপিএস) হয়েছে ১৯ টাকা ৩৮ পয়সা, আগের হিসাব বছরে যা ছিল ১৯ টাকা ৩৯ পয়সা। গত ৩০ জুন শেষে কোম্পানিটির সমন্বিত শেয়ারপ্রতি নিট সম্পদমূল্য (এনএভিপিএস) দাঁড়িয়েছে ৯৬ টাকা ৬৮ পয়সায়, আগের হিসাব বছর শেষে যা ছিল ৮৩ টাকা ৩৬ পয়সা।

এদিকে ঘোষিত ২০২২-২৩ হিসাব বছরের জন্য ঘোষিত লভ্যাংশ ও আলোচ্য হিসাব বছরের অন্যান্য এজেন্ডায় শেয়ারহোল্ডারদের অনুমোদন নিতে আগামী ২২ অক্টোবর সকাল সাড়ে ৯টায় ভার্চুয়াল মাধ্যমে বার্ষিক সাধারণ সভা (এজিএম) আহ্বান করেছে কোম্পানিটি। এ-সংক্রান্ত রেকর্ড ডেট ধরা হয়েছে আগামী ২১ সেপ্টেম্বর।

৩০ জুন সমাপ্ত ২০২১-২২ হিসাব বছরের জন্য শেয়ারহোল্ডারদের ৬০ শতাংশ নগদ লভ্যাংশ দিয়েছে কোম্পানিটি। আলোচ্য হিসাব বছরে কোম্পানিটির সমন্বিত ইপিএস হয়েছে ১৯ টাকা ৩৯ পয়সা, আগের হিসাব বছরে যা ছিল ১৫ টাকা ৬৬ পয়সা। ৩০ জুন ২০২২ শেষে কোম্পানিটির সমন্বিত এনএভিপিএস দাঁড়ায় ৮৩ টাকা ৩৬ পয়সায়, আগের হিসাব বছর শেষে যা ছিল ৬৮ টাকা ৬৯ পয়সা।

২০২০-২১ হিসাব বছরের জন্য শেয়ারহোল্ডারদের ৪৭ শতাংশ নগদ লভ্যাংশ দিয়েছিল ইবনে সিনা ফার্মা। ২০১৯-২০ হিসাব বছরের জন্য শেয়ারহোল্ডারদের ৩৮ দশমিক ৫ শতাংশ নগদ লভ্যাংশ দিয়েছিল তারা। ২০১৮-১৯ হিসাব বছরের জন্য শেয়ারহোল্ডারদের ৩০ শতাংশ নগদ লভ্যাংশ পায় কোম্পানিটির শেয়ারহোল্ডাররা। আগের হিসাব বছরে ৩০ শতাংশ নগদের পাশাপাশি ১০ শতাংশ স্টক লভ্যাংশ দিয়েছিল কোম্পানিটি। ২০১৬-১৭ হিসাব বছরের জন্য ১০ শতাংশ স্টকের পাশাপাশি ২৫ শতাংশ নগদ লভ্যাংশ দিয়েছিল তারা।